fbpx

|

অর্থাভাবে চিকিৎসা বঞ্চিত গঙ্গাচড়ার স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা

প্রকাশিতঃ ৩:১৮ অপরাহ্ন | নভেম্বর ১০, ২০২২

অর্থাভাবে চিকিৎসা বঞ্চিত গঙ্গাচড়ার সাবেক স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা

গঙ্গাচড়া (রংপুর) প্রতিনিধিঃ রংপুর জেলার গঙ্গাচড়া উপজেলা শাখার সাবেক স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক মোঃ মমিনুর ইসলাম বুলেট গুরুতর অসুস্থ। বর্তমানে সে মরণব্যাধি সহ নানাবিধ রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতাল ও ডাক্তারদের দরজায় দরজায় কড়া নাড়ছেন।

তার পরিবারের অভিমত বিদেশে উন্নত মানের চিকিৎসা করানো হলে সুস্হ হয়ে আবারো রাজনীতিতে সক্রিয় হয়ে উঠতে পারেন ত্যাগী, পরীক্ষিত, বিগত জোট সরকারের আমলে নির্যাতিত সাবেক এই নেতা। তার শরীরে দেখা দিয়েছে মরণ ব্যাধি কান্সার দেয়া হচ্ছে কেমোথেরাপি। দীর্ঘদিন ধরে নিজের জমানো সম্বল (অর্থ) দিয়ে চিকিৎসার ব্যয়ভার চালিয়ে এযাবত ৩ টি কেমোথেরাপি দিলেও অর্থাভাবে বাকি কেমো দিতে পারবেনা বলে সংশয় প্রকাশ করেছে তার পরিবার।

বর্তমানে প্রতিটি কেমোথেরাপি দিতে তার খরচ হচ্ছে ৩০-৩৫ হাজার টাকা। এদিকে তার সুচিকিৎসার জন্য বিদেশে নিতে এবং কেমো চিকিৎসা ব্যয় বহনে এক প্রকার অক্ষম তার পরিবার। ব্যাক্তিগত জীবনে বিবাহযোগ্য একটি মেয়ে ও একটি নাবালক ছেলে সন্তানকে নিয়ে মরণ ব্যাধিতে আক্রান্ত হয়ে গুরুতর অসুস্থ হয়ে উন্নত চিকিৎসার অভাবে তিনি চাঁর দেয়ালের ভিতর এখন মৃত্যুর দিন গুনছে।

অর্থাভাবে সু-চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত স্বেচ্ছাসেবক লীগ এই পরিক্ষিত নেতার সুচিকিৎসার জন্য স্থানীয় বিত্তবান ও আওয়ামী লীগ নেতাদের দৃস্টি কামনা করেছেন ৪ নং ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ মাজহারুল ইসলাম লেবু। বুধবার তৃতীয়বারের মতো তার শারীরিক খোঁজ খবর নিতে তার বাড়িতে গিয়ে নগদ ২৫ হাজার টাকা সহায়তা করেন।

এসময় তিনি স্থানীয় সংবাদ কর্মীদের মাধ্যমে তার নিকটাত্নীয় স্বজন সহ শুভাকাঙ্খিদের তার চিকিৎসার সাহাযার্থে আহ্বান জানিয়ে রাজনৈতিক ময়দানে তার অতিত ভুমিকা তুলে ধরে বলেন দলীয় নেতা- কর্মীদের সহযোগিতায় সুচিকিৎসা পেতে পারেন গঙ্গাচড়া উপজেলার সাবেক স্বেচ্ছাসেবক লীগের অন্যতম ত্যাগী, পরীক্ষিত এক সময়ের রাজপথের সাহসী সন্তান মমিনুল ইসলাম বুলেট।

কে এই মুমিনুল ইসলাম বুলেট

রংপুর জেলার গঙ্গাচড়া উপজেলার সদর ইউনিয়ন পরিষদের অন্তর্ভুক্ত মুন্সিপাড়া গ্রামের নুর ইসলামের প্রথম ছেলে। সে বঙ্গবন্ধুর আর্দশে অনুপ্রাণিত হয়ে বাল্যকাল থেকেই আছেন আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে সক্রিয় ।

স্হানীয় প্রবীন রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ সুত্রে জানা গেছে যে মমিনুল ইসলাম বুলেট বাল্যকালে আওয়ামী রাজনীতিতে যুক্ত হয়ে ১৯৯৪ সাল থেকে ছাত্র রাজনীতির মাধ্যমে সক্রিয় ভূমিকা পালন করে আসছে। তিনি কলেজ ছাত্রলীগ, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ,উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়কসহ বিভিন্ন পদে থেকে দলীয় কর্মসূচিতে দিয়েছে সামনে থেকে নেতৃত্ব।

এছাড়াও বিরোধী দলের সময় আ’লীগ এর সকল কর্মকান্ডেও ছিলো স্হানীয় পর্যায়ে তার অন্যতম ভূমিকা। বিগত ২০০১ সালে জাতীয় নির্বাচনে পটভূমি পাল্টিয়ে গেলে বিএনপি-জামাত জোট সরকার গঠন করে এরপরেও আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে ছাত্রলীগের ব্যানারে তৎকালীন সরকার বিরোধী প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে রাজপথে সাহসী ভূমিকা পালন করেন। একারনে তৎকালীন সরকারের রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কবলে পড়েন এ নেতা।

স্হানীয় ত্যাগী, পরীক্ষিত, নির্যাতিত তৃনমূল আওয়ামী লীগের নেতা -কর্মীদের মতামত এখন আমরা (আঃলীগ) ক্ষমতায় এসময় জার্সি বদল করে হাইব্রিড, নব্য অনেক ব্যক্তি আওয়ামী লীগার সেজে দলের নাম ব্যবহার করে কোটিপতি বনে গেছেন অথচ দলের দুঃসময়ে রাজপথে সাহসী ভূমিকা রাখা, ত্যাগী, পরীক্ষিত, নির্যাতিত নেতা মুমিনুল ইসলাম বুলেটের মতো নেতা কর্মীদের খবর কেউ রাখে না।

তৃনমূল নেতা-কর্মী সহ এলাকাবাসী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন,বুলেট একজন কর্মীবান্ধব ত্যাগী নেতা। বিদেশে নিয়ে উন্নত মানের চিকিৎসা গ্রহন করতে পারলে আল্লাহর অশেষ রহমতে এ সাবেক নেতা দ্রুত সুস্হ হয়ে উঠতে পারেন।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বিষয়টি দলীয় নেতাদের মাধ্যমে জানলে অবশ্যই সুচিকিৎসা সহ তার পরিবারের পাশে দাড়াঁবেন । সকলে যেন অসুস্হ এই নেতা ও তার পরিবারের পাশে দাড়াই। সে যেন আবারো রাজপথে জোরালো বজ্রকন্ঠে শ্লোগান দিতে পারে জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু।

দেখা হয়েছে: 58
সর্বাধিক পঠিত
ফেইসবুকে আমরা

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

প্রকাশকঃ মোঃ জাহিদ হাসান
সম্পাদকঃ আরিফ আহম্মেদ
সহকারী সম্পাদকঃ সৈয়দ তরিকুল্লাহ আশরাফী
নির্বাহী সম্পাদকঃ মোঃ সবুজ মিয়া
মোবাইলঃ ০১৯৭১-৭৬৪৪৯৭
বার্তা বিভাগ মোবাইলঃ ০১৭১৫-৭২৭২৮৮
ই-মেইলঃ [email protected]
অফিসঃ ১২/২ পশ্চিম রাজারবাগ, বাসাবো, সবুজবাগ, ঢাকা ১২১৪
error: Content is protected !!