fbpx

|

সৈয়দপুরের আলোচিত জোড়া খুনের মামলায় গ্রেপ্তার ২

প্রকাশিতঃ ১২:০৮ পূর্বাহ্ন | এপ্রিল ২০, ২০১৮

আলোচিত-খুন-মামলা-গ্রেপ্তার-2 arrested in murder case in Saidpur

 নীলফামারী প্রতিনিধিঃ
নীলফামারীর সৈয়দপুরে আলোচিত জোড়া খুনের মামলার আসামী দুই ভাইকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ প্রশাসন। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, শিবলী সাদিক ওরফে প্রদীপ (৩০), মো. সাগর (২৪)। তারা দিনাজপুর জেলার বোচাগঞ্জ উপজেলার ধনপাড়া গ্রামের কলিমুদ্দিনের ছেলে।

বুধবার (১৮ এপ্রিল) দুপুরের দিকে নীলফামারী পুলিশ সুপারের সম্মেলন কক্ষে সংবাাদ সম্মেলন করে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, সহকারী পুলিশ সুপার আলতাফ হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এবিএম আতিকুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অশোক কুমার পাল, সৈয়দপুর থানার ওসি শাহাজান পাশা, জলঢাকা থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান প্রমুখ।

পুলিশ সুপার বলেন, ২০১৭ সালের ২৯ নভেম্বর দুপুরের দিকে জেলার সৈয়দপুর উপজেলা জসিমবাজার দোলাপাড়া গ্রামের একটি ভাড়াবাড়ি থেকে জোড়া খুনের শিকার হন দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুর উপজেলার ব্যবসায়ী মামুনুর রশীদ মামুন (৩৫) ও তার কথিত স্ত্রী একই উপজেলার পরাভিটা গ্রামের মহিদুল ইসলামের মেয়ে ও ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএ পড়ুয়া মিনতারীন সাথি (২৩)।

আলোচিত-খুন-মামলা-গ্রেপ্তার-2 arrested in murder case in Saidpur

এঘটনায় মামুনুর রশীদের বড়ভাই আব্দুর রশিদ বাদি হয়ে সৈয়দপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার পর এ ঘটনায় জড়িত উপজেলার পোড়ারহাট তেলিপাড়া গ্রামের মোহাম্মদ আলীর ছেলে নূর মোস্তফা লাবু ওরফে সুমনকে (২৫) গত বছরের ১৩ ডিসেম্বর গ্রেপ্তার করা হয়। তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী অপর দুই আসামী প্রদীপ ও তার ভাই সাগরকে ঢাকার ডেমরা এলাকার এক ভাড়া বাসা থেকে গত সোমবার (১৬ এপ্রিল) রাতে গ্রেপ্তার করা হয়।

বুধবার ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী শেষে আদালতের মাধ্যমে তাদের জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে। পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন জানান, জসিমবাজার এলাকায় জনৈক নাদিয়া আক্তারের ওই বাড়িতে ভাড়া থাকতেন শিবলী সাদিক ও তার ভাই মো. সাগর। জ্বালানী তেল ব্যবসায়ী মামুনুর রশীদ মামুন তার কথিত স্ত্রী সাথিকে নিয়ে ওই বাড়িতে এসে মাঝে মধ্যে রাত্রী যাপন করতেন। সে সুবাদে বাড়িভাড়াসহ শিবলী সাদিকের পরিবারের সকল খরচ বহন করতেন মামুন।

ঘটনার দিন সকালে মামুন তার কথিত স্ত্রী সাথিকে বাসায় রেখে বাজার খরচ করতে যান। এরই মধ্যে মামুনের কাছ থেকে ত্রিশ লাখ টাকা আদায়ের জন্য ওই তিন আসামী মিলে সাথিকে জিম্মি করার চেষ্টা করে। এতে সাথি চিৎকার করতে থাকলে মুখে বালিশ চাপা দিয়ে ধরালো অস্ত্র দিয়ে গলা কেটে হত্যার পর বিছানায় চাদর দিয়ে লাশ ঢেকে রাখে।

এরপর মামুন বাসায় ফিরলে তাকেও জিম্মি করে ওই ত্রিশ লাখ টাকা আদায়ের চেষ্টা করে। তাতে রাজি না হওয়ায় মামুনকেও ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাথারি কুপিয়ে ও গলা কেটে হত্যা করে। পরে বাসায় রাখা মামুনের মোটরসাইকেল যোগে পালিয়ে যায় আসামীরা।

উল্লেখ্য, মামুন দিনাজপুর পার্বতীপুর উপজেলার নূতনবাজার এলাকার মৃত মনছুর আলীর ছেলে। তিনি ওই উপজেলা বিএনপির যগ্ম সাধারণ সম্পাদক। দিনাজপুর জেলা জ্বালানী তেল ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। বিবাহিত জীবনে তার স্ত্রী ও তিন কণ্যা সন্তান রয়েছে। জানা যায়, কথিত স্ত্রী সাথি মামুনের মামাত বোন।

দেখা হয়েছে: 465
সর্বাধিক পঠিত
ফেইসবুকে আমরা

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

প্রকাশকঃ মোঃ জাহিদ হাসান
সম্পাদকঃ আরিফ আহম্মেদ
সহকারী সম্পাদকঃ সৈয়দ তরিকুল্লাহ আশরাফী
নির্বাহী সম্পাদকঃ মোঃ সবুজ মিয়া
মোবাইলঃ ০১৯৭১-৭৬৪৪৯৭
বার্তা বিভাগ মোবাইলঃ ০১৭১৫-৭২৭২৮৮
ই-মেইলঃ [email protected]
অফিসঃ ১২/২ পশ্চিম রাজারবাগ, বাসাবো, সবুজবাগ, ঢাকা ১২১৪
error: Content is protected !!