fbpx

|

কিশোরগঞ্জের কিশোরীকে ঈশ্বরগঞ্জে গণধর্ষণ: আটক৩

প্রকাশিতঃ ৭:৫৫ অপরাহ্ন | এপ্রিল ০৭, ২০১৯

কিশোরগঞ্জের কিশোরীকে ঈশ্বরগঞ্জে গণধর্ষণ আটক৩

উবায়দুল্লাহ রুমি, ঈশ্বরগঞ্জঃ ময়নসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে এক কিশোরীকে গণধর্ষণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ তিন ধর্ষককে আটক করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার রাতে ঈশ্বরগঞ্জ রেলস্টেশন এলাকায়।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, কিশোরগঞ্জ সদর থানার রশিদাবাদ ইউনিয়নের সীমান্তপুর গ্রামের নয়ন মিয়ার স্কুল পড়ুয়া কন্যা কিশোরগঞ্জ থেকে ঢাকা যাওয়ার পথে ট্রেনে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার সাহেবনগর গ্রামের মজিবুর রহমানের পুত্র মাদ্রাসা ছাত্র মাহফুজুর রহমানের সাথে পরিচয় হয়।

পরিচয় সূত্রে মাহফুজ মেয়েটিকে নিয়ে সোহাগী স্টেশনে নেমে গ্রামের বাড়ি সাহেবনগর নিয়ে যেতে চায়। মেয়ে যেতে অস্বীকৃতি জানালে মাহফুজ অটোবাইকে ঢাকা পাঠানোর উদ্দেশ্যে ঈশ্বরগঞ্জ রেলস্টেশনে নিয়ে আসে। কিন্তু ঢাকায় যাওয়ার কোন ট্রেন না থাকায় ঈশ্বরগঞ্জ স্টেশনে ঘুরাফেরার সময় সুজন ও তার সহযোগীরা দুজনকে জোরপূর্বক পরিত্যক্ত একটি কোয়াটারে আটকে রেখে মেয়েটিকে ধর্ষণ করে।

পরে মেয়েটিকে মিন্টু মিয়ার পুত্র সুজনের বাসায় নিয়ে সুজন, রনি, বাবুল, স্বপন, বাপ্পা ও মাহফুজ পালাক্রমে ধর্ষণ করে রোববার ভোরে ধর্ষিতাকে বাসা থেকে বের করে দেয়।

ধর্ষিতা বিষয়টি স্থানীয় এলাকাবাসীকে অবহিত করলে স্থানীয় মাতাব্বররা সালিশে ঘটনাটি ধামাচাঁপা দেয়ার চেষ্টা করে। খবর পেয়ে পুলিশ ধামদি এলাকা থেকে ধর্ষিতাকে উদ্ধার করে।

এ সময় পুলিশ ধর্ষক মাহফজুর, বাপ্পা ও বাবুলকে আটক করেছে। এ ঘটনায় ধর্ষিতার মা বাদী হয়ে সাত জনকে আসামী করে রবিবার সন্ধ্যায় ঈশ্বরগঞ্জ থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন।

এব্যপারে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সার্কেল) সাখের হোসেন জানান, ঘটনায় তিনজনকে আটক করা হয়েছে। আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদে মাহফুজ ও বাপ্পা ঘটনার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে।

দেখা হয়েছে: 499
সর্বাধিক পঠিত
ফেইসবুকে আমরা

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

সম্পাদকঃ আরিফ আহম্মেদ
সহকারী সম্পাদকঃ সৈয়দ তরিকুল্লাহ আশরাফী
আলী আরিফ সরকার রিজু
নির্বাহী সম্পাদকঃ মোঃ সবুজ মিয়া
বার্তা বিভাগ মোবাইলঃ ০১৭১৫-৭২৭২৮৮
ই-মেইলঃ [email protected]
অফিসঃ ১২/২ পশ্চিম রাজারবাগ, বাসাবো, সবুজবাগ, ঢাকা ১২১৪