fbpx

|

তানোরে গাছ খেকোকে বাচাতে মরিয়া তহসিলদার

প্রকাশিতঃ ৮:০৭ অপরাহ্ন | সেপ্টেম্বর ০১, ২০২২

তানোরে গাছ খেকোকে বাচাতে মরিয়া তহসিলদার

তানোর প্রতিনিধি: সরকারি গাছ খেকো নামধারী যুবলীগ নেতা রবিউলকে বাচাঁতে মরিয়া হয়ে পড়েছেন রাজশাহীর তানোর উপজেলার মুন্ডুমালা ভূমি অফিসের তহসিদার রবিউল বলে অভিযোগ উঠেছে।

কারন গাছ কাটার সাত দিনেও কোন ধরনের ব্যবস্হা না নেওয়ায় তহসিলদারের বিরুদ্ধে অনৈতিক সুবিধা নেওয়ারও গুন্জন বইছে। তাছাড়া কেনই বা এতো দিনেও তহসিলদার তদন্তড বা পরিদর্শন কিছুই করছেন না।

ফলে সপ্তাহ হতে চললেও এবং রাজশাহী থেকে প্রকাশিত ও ঢাকা থেকে প্রকাশিত পত্রিকাসহ বিভিন্ন অনলাইন পোর্টালে গাছ কাটা চুরির ঘটনায় প্রতিবেদন প্রকাশ পেলেও কোন গুরুত্ব নেই তহসিলদারের।

জানা গেছে, তানোর টু মুন্ডুমালা রাস্তার পাঠাকাটা প্রানপুর মোড়ের দক্ষিণে সরকারি পরিপক্ক নিম গাছ কেটে চুরি করে বিক্রি করেন ওই মোড়ের ব্যবসায়ী নামধারী ক্ষমতাসিন দলের পাতি যুবলীগ নেতা রবিউল ইসলাম। সে দীর্ঘ দিন ধরে রাস্তার নয়নজলি ভরাট করে ধানের আড়ত করে দেদারসে বুক ফুলে ব্যবসা করছেন।

স্হানীয়রা জানান, নিম গাছটি অন্য কোন লোক কাটত তাহলে এত দিনে মামলা তদন্ত কত কিছু হয়ে যেত। কিন্তু মুন্ডুমালা ভূমি অফিসের দূর্নীতিবাজ তহসিলদার রবিউল অনৈতিক সুবিধা নিয়ে গাছ কাটা ব্যক্তির বিরুদ্ধে কোন কিছুই করছেন না।

তারা আরো জানান, এই রাস্তা দিয়ে তহসিলদার রবিউল প্রতিদিন অফিসে যান। কিন্তু কোন কিছুই করছে না। একাধিকবার বলার পরও কিছু না করে উল্টো আমাদের বিরুদ্ধে গাছ খেকো রবিউলকে লেলিয়ে দিচ্ছেন। তহসিলদার অফিসে বসে দেদারসে ঘুষ বানিজ্য করেন। টাকা দিলেই সব কাজ হয়। আর না দিলে নানা তালবাহানায় কাজ করেনা।

প্রানপুর পাঠাকাটা গ্রামের ইয়াসিন আলীর পুত্র রবিউল গণমাধ্যম কর্মীদের জানান, আমি সরকারি দলের নেতা, আমি গাছ কাটলে সমস্যা কোথায়, যত খুশি লিখেন আমার বিরুদ্ধে, কর্তৃপক্ষ কিছুই করবে না বলে চরম বিহাব আচরন করেন তিনি।

তার পিতা ইয়াসিন আলী জানান, আসলে এভাবে গাছ কাটা ঠিক হয় নি। তবে আমার নিজস্ব জায়গা। এটা খাস প্রশ্ন করা হলে উত্তরে জানান হতেও পারে।

তহসিলদার রবিউল ইসলাম জানান, আপনি আমার কাছে লিখিত অভিযোগ দেন তাহলে ব্যবস্হা নেওয়া হবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পংকজ চন্দ্র দেবনাথের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করে ঘটনা সম্পর্কে অবহিত করা হলে তিনি জানান, তহসিলদার গণমাধ্যম কর্মীকে অভিযোগের কথা বলতে পারেনা। আমি বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখা হবে, আর গাছ কাটার ব্যাপারে কোন ছাড় না।

দেখা হয়েছে: 39
সর্বাধিক পঠিত
ফেইসবুকে আমরা

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

প্রকাশকঃ মোঃ জাহিদ হাসান
সম্পাদকঃ আরিফ আহম্মেদ
সহকারী সম্পাদকঃ সৈয়দ তরিকুল্লাহ আশরাফী
নির্বাহী সম্পাদকঃ মোঃ সবুজ মিয়া
মোবাইলঃ ০১৯৭১-৭৬৪৪৯৭
বার্তা বিভাগ মোবাইলঃ ০১৭১৫-৭২৭২৮৮
ই-মেইলঃ [email protected]
অফিসঃ ১২/২ পশ্চিম রাজারবাগ, বাসাবো, সবুজবাগ, ঢাকা ১২১৪
error: Content is protected !!