fbpx

|

গৌরীপুরে সাংবাদিকের পা কেটে নেয়ার হুমকি !

প্রকাশিতঃ ৬:৪২ অপরাহ্ন | অগাস্ট ১১, ২০২২

মঞ্জুরুল ইসলাম মশিউর রহমান কাউসার

স্টাফ রিপোর্টার: পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের জের ধরে ময়মনসিংহের গৌরীপুরে সাংবাদিক মশিউর রহমান কাউসারের (৩৮) পা কেটে নেয়াসহ প্রাণনাশের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ ওঠেছে স্থানীয় মঞ্জুরুল ইসলাম (৩৭) নামে স্থানীয় এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে।

বুধবার (১০ আগস্ট) বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে গৌরীপুর রেলস্টেশন এলাকায় এ ঘটনায় ঘটে। এ হুমকীর ঘটনায় জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে ঐদিন রাতে গৌরীপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়রি করেছেন সাংবাদিক।

হুমকি পাওয়া বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান মশিউর রহমান কাউসার দৈনিক আমাদের সময় পত্রিকার গৌরীপুর প্রতিনিধি এবং গৌরীপুর প্রেসক্লাবের সদস্য সচিব।

মশিউর রহমান কাউসার জানান, ঘটনার দিন তিনি গৌরীপুর রেলস্টেশন এলাকায় তাঁর ব্যাবসায়িক প্রতিষ্ঠানে বসেছিলেন। ঘটনার সময় গৌরীপুর পৌরসভার মধ্য ভালুকা এলাকার মৃত ময়েজ উদ্দিনের ছেলে মো. মঞ্জুরুল ইসলাম তার সহযোগী স্থানীয় সিদ্দিক মিয়া (৪৫) কে নিয়ে সেখানে গিয়ে উত্তেজিত হয়ে তাঁকে গালিগালাজ শুরু করেন।

এ সময় মঞ্জুরুল সাংবাদিক কাউসারকে পা কেটে নেয়ার হুমকী দিয়ে বলেন- ‘তুই বড় সাংবাদিক হইয়া গেছস; তোর লাইগ্যা আমি মামলায় ফাঁসছি। আর এতে আমার ৯০ হাজার টেহা খরচ হইছে। তোর পা কাইট্যা নিয়া যাইয়াম।’

উল্লেখ্য এ বছর স্বাধীনতা দিবসে পতাকা মিছিলের প্রস্তুতিকালে উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও একটি মাধ্যমিক স্কুলের শিক্ষক ইমতিয়াজ সুলতান জনির ওপর মঞ্জুরুলের নেতৃত্বে ন্যাক্কাজনক হামলার ঘটনা ঘটে। এসময় কুপিয়ে ও হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে জনির একটি পা ভেঙ্গে ফেলা হয়। পরে গুরুতর আহত জনি রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হলেও তাকে পঙ্গুত্ব বরণ করতে হয়।

এ হামলার ঘটনায় ২৭ মার্চ দৈনিক আমাদের সময় পত্রিকায় ‘গৌরীপুরে হাতুড়ি পেটায় হাঁটু ভাঙল ছাত্রলীগ নেতার’ এই শিরোনামে মশিউর রহমান কাউসারের একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। এ সংবাদ প্রকাশের পর থেকে মঞ্জুরুল ইসলাম ক্ষিপ্ত হয়ে বিভিন্ন সময় সাংবাদিককে নানাভাবে হুমকী দিয়ে আসছিলেন।

অভিযুক্ত মঞ্জুরুল ইসলামের সাথে কথা হলে তিনি জানান, তাদের সাথে আমাদের দীর্ঘদিন যাবত জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছে। ওই দিন তারা বিরোধকৃত জায়গার বাঁশ বিক্রি করে দেয়ায় আমি তাকে শুধু জিজ্ঞাসা করেছি কেন বিক্রি করলো। পরে সে কোন উত্তর দেয়নি। পরে আমি ঘটনাস্থল থেকে চলে এসেছি। আমি কোন প্রকার হুমকি দেইনি।

গৌরীপুর থানার ওসি খান আব্দুল হালিম সিদ্দিকী জিডির সত্যতা স্বীকার সাংবাদিকদের বলেন, এ ঘটনায় পরবর্তী আইনি ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন আছে।

দেখা হয়েছে: 42
সর্বাধিক পঠিত
ফেইসবুকে আমরা

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

প্রকাশকঃ মোঃ জাহিদ হাসান
সম্পাদকঃ আরিফ আহম্মেদ
সহকারী সম্পাদকঃ সৈয়দ তরিকুল্লাহ আশরাফী
নির্বাহী সম্পাদকঃ মোঃ সবুজ মিয়া
মোবাইলঃ ০১৯৭১-৭৬৪৪৯৭
বার্তা বিভাগ মোবাইলঃ ০১৭১৫-৭২৭২৮৮
ই-মেইলঃ [email protected]
অফিসঃ ১২/২ পশ্চিম রাজারবাগ, বাসাবো, সবুজবাগ, ঢাকা ১২১৪
error: Content is protected !!