fbpx

|

চুরির মালামাল দিয়ে চলছে সরকারি প্রতিষ্ঠানের কাজ

প্রকাশিতঃ ১২:৪১ পূর্বাহ্ন | জুলাই ১৮, ২০২১

চুরির মালামাল দিয়ে চলছে সরকারি প্রতিষ্ঠানের কাজ

রবিন চৌধুরী রাসেল-রংপুর জেলা প্রতিনিধিঃ রংপুর বিভাগীয় সদর দপ্তর কার্যালয় এর কাজ সরকারি প্রতিষ্ঠানের চুরি করা মালামাল দিয়ে তৈরী করা হচ্ছে। শনিবার (১৭ জুলাই) সকালের দিকে রংপুর বিভাগীয় কার্যালয় সদর দপ্তরে গিয়ে দেখা যায়, পল্লী বিদ্যুতের ইলেকট্রিক নতুন ও পুরাতন পিলার এবং বাংলাদেশ পাওয়ার ডিভিশন বোর্ড এর ইলেকট্রিক পুরাতন তার প্রতিষ্ঠানের কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে।

জানা যায়, লিজা এন্টার প্রাইজ নামের এক প্রতিষ্ঠান রংপুর বিভাগীয় কার্যালয় সদর দপ্তরে ইলেকট্রিক্যাল কাজের টেন্ডার পেয়েছে। সরকারের চোখ ফাকি দিয়ে রংপুর বিভাগীয় সদর দপ্তর কার্যালয়ে সরকারি প্রতিষ্ঠানের চুরি করা পুরাতন ও নতুন মোট ৩৩ টি ইলেকট্রিক পিলার এবং একটি ইলেকট্রিক তারের ড্রাম ব্যবহার করা হচ্ছে। পিলার গুলো লাগানো প্রায় শেষের দিকে।

এ বিষয়ে লিজা এন্টারপ্রাইজ এর প্রোপাইটর আব্দুস সামাদ ঠিকাদারকে মুঠোফোনে ফোন দিয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, রংপুর বিভাগীয় সদর দপ্তরের কার্যালয়ে ইলেকট্রিক্যাল সাইডের কাজটা আমরা পেয়েছি।

পল্লী বিদ্যুতের পিলার ও বাংলাদেশ পাওয়ার ডিভিশন বোর্ড পুরাতন ইলেকট্রিক পিলার ও ইলেক্ট্রিক তার সম্পর্কে জানতে চাইলে। তিনি বলেন সাব ঠিকাদার শমসের আলী ও রফিকুল ইসলাম মুন্সীর মাধ্যমে সরকারি প্রতিষ্ঠানের পুরাতন ও চোরাই করা মালামাল ক্রয় করা হয়েছে।

সরকারি প্রতিষ্ঠানের পুরাতন ও চোরাইকৃত মালামাল বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি আরো বলেন, এইভাবে মালামাল ক্রয় না করলে কিভাবে মালামাল পাব আপনারাই বলেন। টেন্ডার-ফেন্ডারে এই সব মালামাল গুলো সহজে পাওয়া যায় না। আমি অসুস্থ মানুষ। আমাকে আর ফোন দিয়ে বিরক্ত করবেন না। সমসের আলীর কাছে কল দিয়ে জেনে নেন চোরাইকৃত মালামাল কোথা থেকে নিয়েছে।

পরে সাব ঠিকাদার শমসের আলীকে মুঠোফোনে ফোন দিয়ে চোরাইকৃত মালামাল বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি অসুস্থ মানুষ ডাক্তারের কাছে এসেছি। আমি কন্টাকটারি করিনা। কে আপনাকে আমার মোবাইল নম্বর দিয়েছে বলেন। আমি তার ব্যবস্থা নিবো।

সাব ঠিকাদার রফিকুল ইসলাম মুন্সীকে মুঠোফোন দিয়ে জানতে চাইলে, সমসের আলী কোথায় থেকে মালামাল নিয়ে এসেছে এ বিষয়ে আমি কিছু জানি না।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিভাগীয় গণপূর্ত অফিসের বিভাগীয় নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল্লাহ আল-মামুন বলেন, আমরা রংপুর বিভাগীয় সদর দপ্তর কার্যালয় পরিদর্শন করেছি। সেখানকার কাজের জন্য ব্যবহৃত ইলেকট্রিক পিলার ও ইলেকট্রিক তার অবৈধভাবে নিয়ে এসেছে। সেগুলোর কোন বিল ভাউচার দিতে পারেনি। যে অভিযোগ পেয়েছি তা সত্য। যারা এই অবৈধ মালামাল নিয়ে এসেছেন তাদের বিরুদ্ধে আমরা আইনগত ব্যবস্থা নিবো।

দেখা হয়েছে: 63
সর্বাধিক পঠিত
ফেইসবুকে আমরা

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

সম্পাদকঃ আরিফ আহম্মেদ
সহকারী সম্পাদকঃ সৈয়দ তরিকুল্লাহ আশরাফী
নির্বাহী সম্পাদকঃ মোঃ সবুজ মিয়া
মোবাইলঃ ০১৯৭১-৭৬৪৪৯৭
বার্তা বিভাগ মোবাইলঃ ০১৭১৫-৭২৭২৮৮
ই-মেইলঃ [email protected]
অফিসঃ ১২/২ পশ্চিম রাজারবাগ, বাসাবো, সবুজবাগ, ঢাকা ১২১৪