fbpx

|

তাহেরপুরে সরকারি গোডাউনে হাজার হাজার লিটার ভোজ্য তেল জব্দ,ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার

প্রকাশিতঃ ১১:৫২ অপরাহ্ন | মে ০৯, ২০২২

নাজিম হাসান,রাজশাহী প্রতিনিধি:
রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার তাহেরপুর পৌরসভা বাজারে অবস্থিত সরকারি গোডাউনে অবৈধভাবে মজুত করা ২০ হাজার ৪শ’ লিটার ভোজ্য তেল জব্দ করেছে পুলিশ। এ সময় গ্রেপ্তার করা হয়েছে তেল ব্যবসায়ী শহিদুল ইসলাম ওরফে স্বপন খুলুকে। সোমবার সন্ধ্যা পৌনে ৭টার দিকে পুলিশ এ অভিযান চালায়। জব্দ তেলের মধ্যে ১৯ হাজার ৩৮০ লিটার সোয়াবিন ও ১ হাজার ২০ লিটার সরিষার তেল রয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছেন। সে দীর্ঘদিন ধরে তাহেরপুর বাজারে তেলের ব্যবসা করে আসছিলেন। গ্রেপ্তারকৃত শহিদুল ইসলাম স্বপন খুলু তাহেরপুর পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ড়ের বাজারপাড়া পুলিশ ক্যাম্পের পাচিরের সাথে লাগানো বাড়ি ইসমাইল খুলুর ছেলে। জব্দ তেলের দাম প্রায় ৫০ লাখ টাকা। ব্যবসায়ী শহিদুল ইসলাম স্বপনের নিজস্ব সরিষার তেলের ঘান ও কারখানা রয়েছে। কারখানার আড়ালে তিনি দির্ঘদিন ধরে তেল মজুত করে কৃত্রিম সংকট তৈরির চেষ্টা করছিলেন। পুলিশ জানায়, তাহেরপুর পৌরসভার হাটে একটি সরকারি গোডাউন রয়েছে। ৪নং ওয়ার্ড়ের কান্টুর ছেলে সানোয়ার হোসেন রতন নামের এক ব্যবসায়ী ও এম এসসের ড়িলার শিপ নিয়ে সরকারি গোডাউন ভাড়া নিয়ে শহিদুল ইসলাম ওরফে স্বপন খুলর কাছে বেশি টাকায় বিনিময়ে সেটি ভাড়া দিয়ে আসছিল। ওই গোডাউনে টিসিবির পণ্য থাকতে পারে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ সোমবার সন্ধ্যায় অভিযান চালায়। এ সময় সেখানে ১০০ ড্রাম তেল পাওয়া যায়। এবিষয়ে জেলা পুলিশের মুখপাত্র ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইফতে খায়ের আলম বলেন, ১০০ ড্রাম তেলের মধ্যে ৯৫ ড্রামে রয়েছে সোয়াবিন তেল। প্রতি ড্রামে তেল রয়েছে ২০৪ লিটার। সে হিসেবে সোয়াবিন তেল রয়েছে ১৯ হাজার ৩৮০ লিটার। আর পাঁচ ড্রামে রয়েছে এক হাজার ২০ লিটার সরিষার তেল। তিনি বলেন, অভিযানের সময় মালিক সপন সাজিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। একই সঙ্গে তার গোডাউন সিল করে দেয়া হয়েছে। তার বিরুদ্ধে প্রচলিত আইনে ব্যবস্থা নেয়া হবে। এসময় অভিযানে নেতৃত্ব দেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তী। এসময় উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইফতে খায়ের আলম, পুঠিয়া সার্কেল সহকারি পুলিশ সুপার অলক বিশ্বাস প্রমুখ। এদিকে, রাজশাহী জেলার সর্ব বৃহতম তাহেরপুর পৌরসভা হাট-বাজারে গত কয়েক বছর ধরে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের কোনো রকম অভিযান না থাকায় চাল-ডাল-তেল-চিনি-গ্যাসসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম লাগামহীন বৃদ্ধি করে জনগণের পকেট কাটাচ্ছে এখাকার ব্যবসায়ীরা। ফলে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম লাগামহীন বৃদ্ধির কারণে শ্রমজীবীসহ সাধারণ মানুষ এক মানবেতর জীবনযাপন করছেন। নিত্যপণ্যের অস্বাভাবিক দামের উর্ধ্বগতির ফলে সাধারণ মানুষের ওপর অর্থনৈতিক খড়গ নেমে এসেছে। তাহেরপুর হাট-বাজারের বড় ব্যবসায়ী শ্রী পচা কুমার,গনেষ,শিতল,সুষান্ত,সদেব,ঝুনু দাস,মহাদেব,রতন,তপন,রুহুল,ইসমাইল সাজীর দুই ছেলে রফিক ও স্বপন সাজী,চাচা আবুল সাজীসহ শতাধিক ব্যবসায়ী হাট-বাজার সিন্ডিকেট নিয়ন্ত্র করে সরকারি ভাবে বেধে দেওয়া দামের চেয়ে দফায়-দফায় দাম বৃদ্ধি করে জনগণের পকেট কাটছে। ফলে জনগণের কষ্টার্জিত টাকা লুণ্ঠন করে সম্পদের পাহাড় গড়ছে তারা। অপরদিকে, ভাক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মাঝে মধ্যে বাজার সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারী উচ্চারণ করলেও তা কার্যকর হচ্ছিল না। কারণ এসব অসাধু ব্যবসায়ীরাই এখন রাজনীতি নিয়ন্ত্রণ করছে। তারা সরকার-প্রশাসন-মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রক নেতাদের ছত্রছায়ায় রয়েছে। আর এ কারনে স্থাণীয় প্রশাসন একিবারে নিরব ভুমিকায় রয়েছিন। তবে শুধু মাত্র সরকারি গোডাউনে চললেও বাকি গুলো গোডাউন বা তাদের দোকানে অভিযান না করায় সচেতন মানুদের মিশ্র প্রতিকৃয়া দেখা দিয়েছে।

দেখা হয়েছে: 19
সর্বাধিক পঠিত
ফেইসবুকে আমরা

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

সম্পাদকঃ আরিফ আহম্মেদ
সহকারী সম্পাদকঃ সৈয়দ তরিকুল্লাহ আশরাফী
নির্বাহী সম্পাদকঃ মোঃ সবুজ মিয়া
মোবাইলঃ ০১৯৭১-৭৬৪৪৯৭
বার্তা বিভাগ মোবাইলঃ ০১৭১৫-৭২৭২৮৮
ই-মেইলঃ [email protected]
অফিসঃ ১২/২ পশ্চিম রাজারবাগ, বাসাবো, সবুজবাগ, ঢাকা ১২১৪
error: Content is protected !!