fbpx

|

ত্রিশালে সাব রেজিস্ট্রারের জালিয়াতিতে নিঃস্ব অর্ধশত পরিবার

প্রকাশিতঃ ১১:৫১ অপরাহ্ন | এপ্রিল ০১, ২০১৯

ত্রিশালে সাব রেজিস্ট্রারের জালিয়াতিতে নিঃস্ব অর্ধশত পরিবার

ত্রিশাল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধিঃ ময়মনসিংহের ত্রিশালে সাব রেজিস্ট্রারের ভুয়া দলিল জালিয়াতিতে দেড় কোটি টাকার জমি কমিশন রেজিস্ট্রি করে নিঃস্ব করেছে অর্ধশত পরিবারকে। অসহায় পরিবারের লোকজন খবর পেয়ে রবিবার দিনভর সাব রেজিস্ট্রারের অফিস অবরুদ্ধ করলেও কোনো সুরাহা পায়নি।

ব্যবস্থা গ্রহণ করতে অভিযোগ দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে। তিন সদস্য কমিটি গঠন করেছে প্রশাসন।
জানা যায়, ত্রিশাল উপজেলার খাগাটি মৌজার ১০৯৫৯, ১০৮৬২, ১১০০৬১, ১০৯৬৩, ১১০৭০, ১১০৮৪, ১১০৮৩,২১১, ১৬৯১,১১০৮৪,১০৪৮,১১২৩৭,৩০০,১০৯৬৯, ৩০৪৫, ২৮৬১, দাগের জমির মালিক মঠবাড়ী ইউনিয়নের খাগাটি গ্রামের জুলেখা খাতুন, নাজমুন্নাহার, শিউলি আক্তার, শফিকুর ইসলাম, আবুল কালাম, সেলিম মিয়া, আবুল হোসেন, আব্দুল গফুর, হুমায়ুন কবীর, উবায়দুল হক সোহাগ, সোহেল মিয়া, আছমা খাতুন, আবুল কাশেম, মো. মামুন, হারুনুর রশীদ, বজলুর রশীদ, মো. আলম, আকরাম হোসেন, রইস উদ্দিন, হোসনে আরা বেগম, নিজাম উদ্দিন, আমেনা খাতুন,নবীজান বেওয়ার প্রায় ৫ একর জমি ভুয়া ভোটার আইডি কার্ডের মাধ্যমে খারিজ দেখিয়ে প্যারামাউন্ট হোল্ডিং লিমিটেডের পক্ষে কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক অলক কুমার দাসের নামে রেজিস্ট্রি করে জিয়া সরকারের মাধ্যমে।

জমির প্রকৃত মালিকরা না জানলেও ওই নামে অন্য ব্যক্তিদের হাজির করে গত ২৮ শে মার্চ রেজিস্ট্রি করে কমিশন দলিল হিসেবে অফিসের বাহিরে। দলিলে সংশ্লিষ্ট রেজিস্টার উপস্থিত থাকার কথা থাকলেও চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারীর মাধ্যমে এ ভুয়া দলিল করে।

কোম্পানির মালিক পক্ষ তাদের জমি বুঝে নিতে এলাকায় গেলে টের পেয়ে যায় স্থানীয় মালিকরা। সাব রেজিস্ট্রি অফিসের দলিল লেখক স্থানীয় দালালদের সহায়তায় কমিশন দলিলের মাধ্যমে দুই দলিলের মাধ্যমে খাগাটি গ্রামের অসহায় দরিদ্র মানুষের তিন একর বাহাত্তর শতাংশ জমি হাতিয়ে নেয়।

গতকাল রবিবার সকাল থেকে জমিহারা হারানো নিঃস্ব মানুষগুলোর সাথে এলাকার শতশত মানুষ উপজেলা সদরের সাব রেজিস্ট্রি অফিস ঘেরাও করে রাখে। এক পর্যায়ে তারা দুর্নীতিবাজ সাব রেজিস্ট্রারকে অবরুদ্ধ করে।

এ সময় তারা দুর্নীতিবাজ সাব রেজিস্ট্রার ও দালালদের বিচারের দাবি জানায়। এতে বন্ধ হয়ে যায় অফিসের সকল কার্যক্রম। দুপুরে ত্রিশাল থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে জমি ফেরৎ পাওয়ার ব্যাপারে আশস্ত করলেও এ রিপোট লেখা পর্যন্ত অফিসের সামনেই অবস্থান করছিল ভুক্তভোগীরা। সন্ধ্যায় ত্রিশাল পৌর শহরে দুর্নীতিবাজ সাব রেজিস্ট্রারের বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করে।

জমি হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে যাওয়া নবীজান বেওয়া দুপুরে সাবরেজিস্ট্রি অফিসের সামনে এসে আহাজারি করতে থাকেন। তিনি বলেন, আমার ভিটে মাটিসহ এই জমিটুকুই একমাত্র সম্বল। এই জমিটুকু নিয়ে গেলে আমি নিঃস্ব হয়ে যাব। পথের ভিখারী হয়ে মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরতে হবে। আমার জমিটুকু ফেরৎ চাই এবং দালালদের বিচার চাই।

স্বামী হারা আমেনা খাতুন তার এইটুকু জমি সন্তানদের লালন পালন করে দিনানিপাত করত। ভুয়া দলিলের মাধ্যমে জমি হাতিয়ে নেওয়ায় নিঃস্ব হয়েছে। জমি ফেরতের আশায় সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত সাবরেজিস্ট্রি অফিসের বারান্দায় বসে কান্নাকাটি করছে। আঁচল তুলে আল্লাহর কাছে তার জমি ফেরতের আশায় আহাজারি করছে।

জমি হারিয়ে আব্দুল গফুর ও আব্দুর রহমানসহ তার ভাইয়েরা সকাল থেকেই অবস্থান নিয়েছে সাবরেজিস্ট্রি অফিসে। জমি না পেলে এখানে আমরন অনশন করবে। জমি ছাড়া বাড়ি ফিরবেন না বলেন আর্তনাদ করতে থাকেন।

দলিল লেখক সমিতির সাধারণ সম্পাদক দুলাল বলেন, এই ভুয়া দলিল না করতে আমরা না করা সত্ত্বেও অফিসের বাহিরে গিয়ে এ দলিল সম্পাদন করে। স্থানীয় আওয়ামী লীগের উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী ইকবাল হোসেন এ জমির মধ্যস্থতা করার পাশাপাশি তিনি নিজের দলিলে সাক্ষী হয়েছেন। এতে করে খাগাটি এলাকার প্রায় অর্ধ শতাধিক নিরীহ পরিবার পথে বসে যাবে।

ভুয়া দলিল হয়েছে স্বীকার করে সাব রেজিস্ট্রার ফারুক আহমেদ বলেন, জমির কাগজপত্র সব ঠিকই ছিল, তবে মালিকদের ছবি নকল ছিল। সমস্যাটি সমাধান করে দেওয়া হবে।

ইউএনও আব্দুল্লাহ আল জাকির বলেন, ভূয়া দলিল রেজিস্ট্রি করার ঘটনায় তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করে সাত কর্মদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। সহকারী কমিশনার ভুমি, উপজেলা মৎস কর্মকর্তা, ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তাকে ৭ কর্ম দিবসের মধ্যে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে।

জেলা প্রশাসক সুভাস চন্দ্র বিশ্বাস বলেন, বিষয়টি আমি অবহিত হয়েছি। এ ব্যাপারে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাকে নির্দেশ দিয়েছি।

দেখা হয়েছে: 482
সর্বাধিক পঠিত
ফেইসবুকে আমরা

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

প্রকাশকঃ মোঃ জাহিদ হাসান
সম্পাদকঃ আরিফ আহম্মেদ
সহকারী সম্পাদকঃ সৈয়দ তরিকুল্লাহ আশরাফী
নির্বাহী সম্পাদকঃ মোঃ সবুজ মিয়া
মোবাইলঃ ০১৯৭১-৭৬৪৪৯৭
বার্তা বিভাগ মোবাইলঃ ০১৭১৫-৭২৭২৮৮
ই-মেইলঃ [email protected]
অফিসঃ ১২/২ পশ্চিম রাজারবাগ, বাসাবো, সবুজবাগ, ঢাকা ১২১৪
error: Content is protected !!