fbpx

|

রাজশাহীতে বউ হারালেন জীবন স্বামীর ঘরে বসেই পরকীয়া প্রেমিককে বিয়ে

প্রকাশিতঃ ১০:২০ অপরাহ্ন | সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২২

রাজশাহী প্রতিনিধি:
এক যুগ পরে বউ হারালেন মোস্তাফিজুর রহমান জীবন নামের এক ব্যাক্তি। জীবনরে বাবার নাম মৃত মকছেদ আলী। তার আদি বাড়ি দুর্গাপুর উপজেলার সুজালগর গ্রামেতে। তিনি পেশায় অবাগ সন্দেশ বিক্রিতা ছিলেন। তবে জীবন বাবার পৃত্রিক ভিটা ছেড়ে এসে নানির বাড়ি রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার গোয়ালকান্দি ইউনিয়নের রামরামার হাসনীপুর গ্রামে বসবাস করতেন। এরই সুত্র ধরে এক যুগ আগে তাহেরপুর বাজারে প্রাইভেট পড়াতে গিয়ে পরিচয় হয় কিটনাশক ব্যবসায়ী হিন্দু সম্প্রদায়ের মেয়ে কলি প্রামানিকের সাথে। ওই সময় ভয়ভীতি দেখিয়ে অনৈতিক সম্পর্ক গড়ে তোলে ওই ছাত্রীর সাথে জীবন। পরে ওই ছাত্রীকে নিয়ে পালিয়ে বিয়ে করেন জীবন। সে সময় ধর্মপাল্টিয়ে তার নাম রাখা হয় অন্তরা বেগম। নিজের নাম পরিবর্তন করলেও পিতা-মাতার নাম ঠিকানা পরিবর্তন হয়নি। তার পিতার বাসা তাহেরপুর পৌরসভায়। জীবনের দীর্ঘ দাম্পত্য জীবনে তাদের ঘরে ৫ বছরের একটি মেয়ে সন্তান রয়েছে। সে মেয়েকে নিয়ে নিজের ফেসবুক পেজে আবেগঘন একটি পোস্টও দিয়েছেন মোস্তাফিজুর রহমান জীবন। বিয়ের পর থেকেই শারীরিক নির্যাতন আর গালমন্দের শিকার হতে হয়েছে অন্তরাকে। মাদক সেবন আর নানান অপকর্ম করে বেড়াতো জীবন। এছাড়া জীবন পশ্নপত্র ফাস করতে গিয়ে র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার হয়ে জেল খেটে বেড়িয়ে এসে আবারোও নানান অপকর্মে জড়িয়ে পড়েন জীবন। এদিকে,জীবনের সংসারে থেকেই পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ে অন্তরা। স্বামীর নির্যাতন ও অবহেলা সইতে না পেরে গোপনে অন্য ছেলের সাথে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন। খোঁজ নিয়ে জানাগেছে, জীবন ব্যক্তিগত কাজে ঢাকায় অবস্থান করার সুযোগে শনিবার রাতে একই ইউনিয়নের কামারখালি গ্রামের আব্দুল জব্বার এর ছেলে সাহিদুল ইসলামের সাথে পরকীয়ায় লিপ্ত হয়। এ সময় পরিবারের লোকজন তাদেরকে হাতে নাতে ধরে ফেলে। এর আগেও তারা কয়েকবার শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হয়েছিলেন বলে জানাগেছে। অশালীন কাজের সময় ধরা পড়ার পর জীবনের বাড়িতে থেকেই অন্তরা বেগম তার স্বামী মোস্তাফিজুর রহমান জীবনকে তালাক করে। সেই সাথে রাত সাড়ে ১২ টার দিকে ৬ লাখ টাকা দেনমোহরে পরকীয়ায় লিপ্ত হওয়া সাহিদুল ইসলামের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয় অন্তরা বেগম। এমন ঘটনায় এলাকার মানুষের মাঝে ব্যাপক চাঞ্চলের সৃষ্টি হয়। স্থানীয়রা জানান, মোস্তাফিজুর রহমান জীবন সাপ্তাহিক অগ্রযাত্রা পত্রিকার সাংবাদিক হিসেবে কাজ করেন। সাংবাদিকতার পরিচয় দিয়ে এলাকার চাদাবাজি,জোর পুর্বক জমি দখলসহ নানান রকম অপকর্ম করে বেড়ান বলেও জানান রামরামা গ্রামের আসরাফুল নামের এক ব্যাক্তি। তিনি জানান তার বাবার খতিয়ান ভুক্ত জমিতে এই জীবন পুর্বক দখল করে সেখানে টিনের ঘর নির্মান করেছে। এসময় আমি নিরুপায় হয়ে তাহেরপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রর উপ-পুলিশ পরিদর্শক জিলালুর রহমানকে জানালে তিনি এখন পর্যন্ত কেছু করেনি। এব্যাপারে গোয়ালকান্দি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলমগীর সরকার বলেন, ছেলে-মেয়ে উভয়ে প্রাপ্ত বয়স্ক। তারা একে অপরকে বিয়ে করবে বলে সম্মত হয়। ছেলে-মেয়ের সম্মতিতেই রাতে বিয়ে সম্পন্ন করা হয়। তবে এ সময় মোস্তাফিজুর রহমান জীবন বাড়িতে ছিলেন না।#

দেখা হয়েছে: 33
সর্বাধিক পঠিত
ফেইসবুকে আমরা

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

প্রকাশকঃ মোঃ জাহিদ হাসান
সম্পাদকঃ আরিফ আহম্মেদ
সহকারী সম্পাদকঃ সৈয়দ তরিকুল্লাহ আশরাফী
নির্বাহী সম্পাদকঃ মোঃ সবুজ মিয়া
মোবাইলঃ ০১৯৭১-৭৬৪৪৯৭
বার্তা বিভাগ মোবাইলঃ ০১৭১৫-৭২৭২৮৮
ই-মেইলঃ [email protected]
অফিসঃ ১২/২ পশ্চিম রাজারবাগ, বাসাবো, সবুজবাগ, ঢাকা ১২১৪
error: Content is protected !!