fbpx

|

বাগমারায় কেমিক্যাল দিয়ে পাকানো কলা বিক্রি হচ্ছে হাট বাজারে

প্রকাশিতঃ ৯:৪১ অপরাহ্ন | অক্টোবর ১৩, ২০২২

নাজিম হাসান,রাজশাহী প্রতিনিধি: রাজশাহীর বাগমারা উপজেলায় দির্ঘ দেড় যুগ ধরে স্যানিট্যারি ইন্সপেক্টারের বাজার মনিটরিং ব্যবস্থা না থাকায় বিভিন্ন হাটবাজারে রাসায়নিকে পাকানো হচ্ছে বিভিন্ন জাতের কলা। আর এই বিষাক্ত কলা স্বাস্থ্যর জন্য হুমকির কারণ হলেও অসাধু ব্যবসায়ীদের এই তৎপরতা থামছে না। তারা অতি মুনাফার লোভে বিভিন্ন হাট বাজারের আনাচে কানাচে গোডাউন ভাড়া নিয়ে দেদারসে রাসায়নিক মিশিয়ে দ্রুত কলা পাকানোর ব্যবস্থা করছে। ফলে কলার চাহিদা বেশি থাকায় কৃত্রিম উপায়ে পাকানো হচ্ছে এ কলাগুলো। এতে কলার পুষ্টিগুণ নষ্ট হয়ে স্বাস্থ্য ঝুঁকিতেও পড়তে পারে সাধারণ মানুষ। স্থানীয় খুচরা ব্যবসায়ীরা অপরিপূর্ণ বয়সী কলা হাউসে রেখে ধোঁয়া দিচ্ছে। এতে খুব দ্রুত নরম হয়ে পেঁকে যাচ্ছে আবার রংও হচ্ছে আকর্ষণীয়। আর এ কলা বাজারে খুচরা বিক্রি হচ্ছে স্থানীয় বাজার গুলোতে। উপজেলার বিভিন্ন কলা চাষী ও ব্যবসায়ীদের সূত্রে জানা গেছে, এই উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন ও পৌরসভায় ছোট বড় মিলে ২৬ টি কলার আড়ৎ রয়েছে। সবচেয়ে বেশি কলার আড়ৎ রয়েছে তাহেরপুর হাটে। এখানেই বসে কলার বৃহৎ হাট। প্রতি সোম ও শুক্রবার এখানে হাট বসে। এই হাট সহ অন্যান্য হাট থেকে প্রতিদিন অন্তত বিশ ট্রাক কলা রাজধানী ঢাকা সহ বিভিন্ন জেলা শহরে রপ্তানী হয়ে থাকে। রপ্তানীকৃত এসব কলার অধিকাংশই কাঁচা থাকে। তবে স্থানীয় বাজারে যেসব কলা ক্রয় বিক্রয় করা হয়। তার সবগুলোই থাকে পাকা। আর এসব কলাই রাসায়নিকে পাকানো হয়। ভবানীগঞ্জ কারিগরি ও ব্যবস্থাপনা কলেজের অধ্যক্ষ আতাউর রহমান শিবলী জানান, তিনি শবরী কলা(মানিক) পছন্দ করেন। ইদানিং কলা গুলোতে তেমন স্বাদ পাচ্ছেন না। টকটকে হলুদ রংগের কলা বাড়িতে এনে খাওয়ার সময় দেখেন সেগুলো কচকচ করছে। একই বাজারের আরেক কলার ক্রেতা কলেজ শিক্ষক ইয়াছিন আলী জানান, বাজারে এখন যে কলা ওঠেছে তার সবগুলোই অপরিপক্ষ। তার মতে, রাসায়নিক দিয়ে এসব কলা পাকানোর ফলে সেগুলোতে আর তেমন স্বাদ পাওয়া যাচ্ছে না। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আব্দুর রাজ্জাক জানান, তারা কলা চাষ ও কলা বাগানের পরিচর্চা নিয়ে তারা কাজ করেন। তার মতে, রাসায়নিকে পাকানো কলা স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্বক ক্ষতিকর। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ গোলাম রাব্বানী বলেন, রাসায়নিকে পাকানো কলা খেলে পেটের পীড়া, কিডনী বিকল ও ক্যান্সারের মত মারাত্বক রোগের ঝুকি রয়েছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাইদা খানম বলেন, ক্ষতিকর রাসায়নিকে কলা সহ যেকোন ফল পাকানো শাস্তিযোগ্য অপরাধ। এমন অভিযোগ ও প্রমান পেলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।#

দেখা হয়েছে: 44
সর্বাধিক পঠিত
ফেইসবুকে আমরা

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

প্রকাশকঃ মোঃ জাহিদ হাসান
সম্পাদকঃ আরিফ আহম্মেদ
সহকারী সম্পাদকঃ সৈয়দ তরিকুল্লাহ আশরাফী
নির্বাহী সম্পাদকঃ মোঃ সবুজ মিয়া
মোবাইলঃ ০১৯৭১-৭৬৪৪৯৭
বার্তা বিভাগ মোবাইলঃ ০১৭১৫-৭২৭২৮৮
ই-মেইলঃ [email protected]
অফিসঃ ১২/২ পশ্চিম রাজারবাগ, বাসাবো, সবুজবাগ, ঢাকা ১২১৪
error: Content is protected !!