fbpx

|

স্বামীর নির্যাতনের শিকার: দুই সন্তান নিয়ে চাপা কষ্টে গৃহবধূ

প্রকাশিতঃ ২:১০ অপরাহ্ন | নভেম্বর ০৫, ২০২২

স্টাফ রিপোর্টার: লক্ষ্মীপুরে যৌতুক লোভী স্বামীর নির্যাতন সইতে না পেরে দুই সন্তান নিয়ে চাপা কষ্টে আছেন গৃহবধূ রিনা সুলতানা (৪৩)। কারণে-অকারণে প্রায় নির্যাতনের শিকার হয়তো গৃহবধূ।

অভিযুক্ত স্বামী জয়নাল পাটোয়ারী তার ভাড়াটিয়া লোকজন দিয়ে দফায়-দফায় হামলা, মারধর, হয়রানি ও হত্যার চেষ্টা অভিযোগ এনে দুই সন্তান নিয়ে সুবিচার পাওয়ার আশায় গণমাধ্যমকর্মীদের কাছে অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী রিনা সুলতানা।

শনিবার (৫ নভেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে লক্ষ্মীপুর উত্তর তেহমুণী বাসস্ট্যান্ড এলাকায় একটি পত্রিকার অফিসে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

রিনা সুলতানার সঙ্গে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন- বড় ছেলে রিয়াজ হোসেন চৌধুরী ও ছোট ছেলে আরমান হোসেন চৌধুরী প্রিন্স।

রিনা সুলতানা বলেন, ২০১২ সালের ১৩ জুলাই জয়নাল পাটোয়ারীর সঙ্গে দুই লাখ টাকার দেনমোহরে বিবাহ হয়। বিয়ের পর থেকে ৬টি বছর সুখে-শান্তিতে সংসার জীবন কাটে। হঠাৎ কোন কারণ ছাড়াই আমাকে (ডির্ভোস) তালাক দেয়। এনিয়ে দীর্ঘদিন আমাদের দূরত্ব থাকলেও একসময় ফের সমাধানে যায় দুইজনে। ২০১৯ সালে ১২ লক্ষ টাকা দেনমোহরে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হই। আমার স্বামী জয়নাল পাটোয়ারীর আমি দ্বিতীয় স্ত্রী,সেইও আমার দ্বিতীয় স্বামী। তার আগের সংসারে কোন সন্তান নাই। আমার দুই ছেলে। আমাদের বর্তামান সংসারে কোন সন্তান নাই।

বিগত দুই বছর ধরে আমার স্বামীর সঙ্গে কঠিন দ্বন্দ্ব চলে। সেই আমাকে যৌতুকের জন্য চাপপ্রয়োগ করে। একপর্যায়ে রাগ-অভিমান করে আমাদের ছেড়ে তার বাড়ি সদর উপজেলার চর রুহিতা ইউনিয়নের চর মন্ডল গ্রামে চলে যান।

সম্প্রতি তাকে ফিরে আনতে তার বাড়িতে গেলে সেই আমাকে অখ্যাত ভাষা গালমন্দ করে এবং মারধর করে। পরে আমি জাতীয় সেবা-৯৯৯ কল করলে, পুলিশ আমাকে ওই বাড়ী থেকে উদ্ধার করে। এরপর আমি দুইদিন লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি থাকি।

সর্বশেষ কিছুদিন পূর্বে জয়নাল পাটোয়ারী তার ভাড়াটিয়া লোকজন নিয়ে আমার শহরের বাসটার্মিনাল এলাকায় বাসায় হামলা করে। এসময় হামলাকারীরা আমার দুই ছেলেকে ব্যাপক মারধর করে। এসব ঘটনায় আমি থানায় অভিযোগ করলে পুলিশ আমার বাসা ও তার বাড়িতে তদন্ত করে।

লক্ষ্মীপুর সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোসলেহ উদ্দিন বলেন, মারধর ও হামলার ঘটনায় নিরা সুলতানা নামে এক নারী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ জমা দেয়। বিষয়টি খতিয়ে দেখা জন্য উভয়পক্ষকে থানা ডাকছি।

দেখা হয়েছে: 17
সর্বাধিক পঠিত
ফেইসবুকে আমরা

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

প্রকাশকঃ মোঃ জাহিদ হাসান
সম্পাদকঃ আরিফ আহম্মেদ
সহকারী সম্পাদকঃ সৈয়দ তরিকুল্লাহ আশরাফী
নির্বাহী সম্পাদকঃ মোঃ সবুজ মিয়া
মোবাইলঃ ০১৯৭১-৭৬৪৪৯৭
বার্তা বিভাগ মোবাইলঃ ০১৭১৫-৭২৭২৮৮
ই-মেইলঃ [email protected]
অফিসঃ ১২/২ পশ্চিম রাজারবাগ, বাসাবো, সবুজবাগ, ঢাকা ১২১৪
error: Content is protected !!