|

পদ্মা নদীর পানি সেচে ৪ হাজার কৃষকের জমি চাষ করে ভাগ্য ফিরবে

প্রকাশিতঃ ৯:২৬ অপরাহ্ন | ডিসেম্বর ৩১, ২০১৭

শামসুজ্জোহা বাবু গোদাগাড়ী প্রতিনিধি:

ডাসকো ফাউন্ডেশন কর্তৃক নির্মিত ও সুইচ ডেভেল্পমেন্ট কর্পোরেশন (এসডিসি) এর অর্থায়নে সেচ দিয়ে নদী থেকে পাম্পের সাহায্যে স্বল্প খরচে সেচ সুবিধা পাবে রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার দুটি ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় অন্যান্য বছরের তুলনায় ফসল উৎপাদন বাড়বে অনেক গুণে। তাই সংশ্লিষ্ট এলাকার কৃষকদের অনেকেরই ভাগ্যের উন্নয়ন ঘটবে বলে জানিয়েছে স্থানীয় কৃষকরা।

স্থানীয় কৃষকদের মতে, এসডিসি কর্তৃক নির্মিত এ সেচ ব্যবস্থা ব্যবহার করে সহজেই জমিতে সেচ দিয়ে অধিক ফসল উৎপাদন করতে সক্ষম হবেন তারা। সেচের এ সহজলভ্যতার কারণে এসব এলাকায় অন্যান্য বছরের তুলনায় ফসল উৎপাদন বাড়বে অনেকাংশে ।

গোদাগাড়ী উপজেলার মাটিকাটা ইউনিয়নের পিরিজপুর, ভাটোপাড়া,বিদিরপুর,তিরিন্দা এবং দেওপাড়া ইউনিয়নের চাপাল,খড়চকা, কমিরপাড়া, বিয়ানাবোনা, কানাইডাঙ্গা, নিলবোন গ্রামে এ প্রকল্পের সুবিধা পাবে কৃষকেরা । কৃষকেরা জানান, এসডিসি নির্মিত সেচ দিয়ে জমিতে সেচ দেয়া একদিকে যেমন খুবই সহজ হবে অন্যদিকে এক্ষেত্রে খরচ একইবারেই কম হবে । এটির মাধ্যমে আমরা ইচ্ছেমত ফসলী জমিতে সেচ দিয়ে ফসল উৎপাদন করতে পারব ।

পিরিজপুরের কৃষক মুখলেস বলেন, বিল এলাকা এবং সেচে খরচ বেশী হওয়ার কারণে কোন জমিতে বছরে এক ফসল বা দুটো ফসল ফলায় । এই সেচ ব্যবস্থা চালু হলে বছরে তিন ফসল উৎপাদন করে অন্য বছরের তুলনায় ফসল উৎপাদন বেড়ে যাবে। এবং খরচও কম হবে বলে আশা করছি।

বাংলাদেশ ডাসকো ফাউন্ডেশনের প্রজেক্ট ইঞ্জিনিয়ার একেএম নূর আযম সিদ্দিকি বলেন, অতিমাত্রায় ভূ-গর্ভস্থ পানি উত্তোলনের ফলে পানির লেয়ার নিচে নামে যাওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি এবং নিরাপদ বিশুদ্ধ পানি হারিয়ে যাচ্ছে। তাই রক্ষার জন্য সুইচ ডেভেল্পমেন্ট কর্পোরেশন (এসডিসি) কাজ করছে। এসডিসির অর্থায়নে ভূ-গর্ভস্থ পানি রক্ষার জন্য উপজেলার দুটি ইউনিয়নে পদ্মা নদীতে দুটি পানির পাম্প নির্মিত হয়েছে। এর মধ্যমে মাটিকাটা ও দেওপাড়া ইউনিয়নের অধিকাংশ এলাকার নদীর তীরবর্তী এলাকায় পাম্পের সাহায্যে পানি উত্তোলন করে পাইপের মাধ্যমে প্রায় ১ হাজার ৬৬ হেক্টর জমিতে সেচ দেয়া যাবে, ফলে এসব জমিতে দিগুন ফসল ফলবে।

কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার ও উপজেলা ভারপ্রাপ্ত কৃষি কর্মকর্তা মরিয়ম আহমেদ বলেন, ডিপ টিউবওয়েলের মাধ্যমে সেচ প্রকল্প চালালে ভূ-গর্ভস্থ পানির স্তর নিচে নেমে যাওয়ার ফলে বিশুদ্ধ খাবার পানি থেকে অচীরেই আমরা বঞ্চিত হবো। তাই পদ্মা নদী থেকে সেচ করে জমির ফসল ফলাতে পারলে ভালো হয়। তিনি আরও বলেন, মাটিকাটা ও দেওপাড়া ইউনিয়নে যদি এই ধরনের প্রকল্প চালু হয় তাহলে ফসল উৎপাদন বৃদ্ধি সহ কৃষকের খরচ অনেক অংশে কমে আসবে। এতে করে অল্প খরচে বছরে তিনটি ফসল উৎপাদন করে কৃষকেরা উপকৃত হবে।

পদ্মা নদীর পানি সেচে ৪ হাজার কৃষকের জমি চাষ করে ভাগ্য ফিরবে-Aporadh-Barta

পদ্মা নদীর পানি সেচে ৪ হাজার কৃষকের জমি চাষ করে ভাগ্য ফিরবে-Aporadh-Barta

মাটিকাটা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান তৌহিদ আলী আযম বলেন, আমার ইউনিয়নের চার টি গ্রামের সকল কৃষক মিলে পিরিজপুর পানি সম্পদ ব্যবস্থাপনা কমিটি গঠন করে ডাসকোর সহযোগীতা নিয়ে প্রায় আড়াই হাজার কৃষক ৩ হাজার ৫০০ বিঘা জমি এই সেচ প্রকল্পের সুবিধা নিয়ে ফসল উৎপাদন বৃদ্ধি করে নিজেদের ভাগ্যের পরিবর্তন ঘটাবে। আশা করছি আগামী জানুয়ারী মাসে প্রকল্পের সুবিধা কৃষকেরা পেয়ে যাবে। এসডিসির অর্থায়নে ডাসকোর সহযোগীতায় ৫৬ লক্ষ ৭৩ হাজার ৫৬৭ টাকা বিনিয়োগে এই প্রকল্প চালু করছে পানি সম্পদ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি সফিউল ইসলাম মুক্তা। এই প্রকল্পটি ৮০ ভাগ অর্থ ব্যয় করছে এসডিসি, ১৫ ভাগ অর্থ ব্যয় করছে সমিতি এবং ৫ ভাগ অর্থ ব্যয় করছে ইউনিয়ন পরিষদ।

দেওপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আখতারুজ্জামান অপরাধ বার্তাকে বলেন, আমার ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি গ্রামের সকল কৃষক মিলে খড়চাকা পানি সম্পদ ব্যবস্থাপনা কমিটি গঠন করে ডাসকোর সহযোগীতা নিয়ে প্রায় দেড় হাজার কৃষক ১ হাজার ৫০০ বিঘা জমি এই সেচ প্রকল্পের সুবিধা নিয়ে ফসল উৎপাদন বৃদ্ধি হবে এবং দেশের অর্থনীতিতে বিশেষ ভূমিকা রাখবে আমাদের এই কৃষকেরা। আশা করছি আগামী জানুয়ারী মাসে প্রকল্পের সুবিধা কৃষকেরা পেয়ে যাবে।

এসডিসির অর্থায়নে ডাসকোর সহযোগীতায় ৮৩ লক্ষ ২৪ হাজার ৪৮৫ টাকা বিনিয়োগে এই প্রকল্প চালু করছে পানি সম্পদ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি হাবিবুর রহমান। এই প্রকল্পটি ৮০ ভাগ অর্থ ব্যয় করছে এসডিসি, ১৫ ভাগ অর্থ ব্যয় করছে সমিতি এবং ৫ ভাগ অর্থ ব্যয় করছে ইউনিয়ন পরিষদ।

দেখা হয়েছে: 294
সর্বাধিক পঠিত
ফেইসবুকে আমরা

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।
সম্পাদকঃ আরিফ আহমেদ
প্রকাশকঃ উবায়দুল্লাহ রুমি
সহকারী সম্পাদকঃ সৈয়দ তরিকুল্লাহ আশরাফী
নির্বাহী সম্পাদকঃ মোঃ সবুজ মিয়া
বার্তা বিভাগ মোবাইলঃ ০১৭১৫-৭২৭২৮৮
সহকারী সম্পাদকঃ মোবাইল ০১৯১৬-৯১৭৫৬৪
নির্বাহী সম্পাদকঃ মোবাইল ০১৭১৮-৯৭১৩৬০
ই-মেইলঃ aporadhbartamofosal@gmail.com
অফিসঃ ১২/২ পশ্চিম রাজারবাগ, বাসাবো, সবুজবাগ, ঢাকা ১২১৪
error: Content is protected !!