fbpx

|

তানোরে পিডিবির যোগসাজসে মটারে অবৈধ ৩ফেজ লাইন বিতরণ

প্রকাশিতঃ ৯:৪২ অপরাহ্ন | ডিসেম্বর ২৮, ২০১৭

তানোর প্রতিনিধি:

রাজশাহীর তানোরে পিডিবির যোগসাজসে বিএনপির এক নেতার অবৈধ মটারে ৩ফেজ বিদ্যুৎ লাইন দেবার অভিযোগ পাওয়া গেছে । কোন ধরনের অনুমতি ছাড়াই মটার বসিয়ে বিদ্যুৎ অফিসের এক শ্রেনীর অসাধু কর্মকর্তাদের মাধ্যমে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে এ লাইন দেয়া হয়েছে বলে একাধিক কৃষক নিশ্চিত করেছেন ।

এঘটনায় শামসুল আলম জুয়েল নামের এক মটার মালিক প্রথমে পিডিবি ও বিএমডিএ অফিসে লিখিত অভিযোগ দেবার পরেও কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি । উল্টো অভিযোগ কারীর অনুমোদিত মটারের লাইন বন্ধের হুমকি দেয়া হচ্ছে। দ্রুত বিএনপি নেতার অবৈধ মটারের বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ না করলে ওই এলাকায় ঘটতে পারে সংঘর্ষ । পৌর এলাকার বরুজ গ্রামে ঘটে রয়েছে এমন ঘটনা ।

গত মঙ্গলবার বিকালে সরেজমিন গিয়ে দেখা যায় বুরুজ গ্রামের উত্তর দিকে বাঁশঝাড় ও পুকুরের এক কর্নারে বসানো হয়েছে ১০ হর্সের মটার । জায়গাটি এত নিরিবিলি বুঝার উপায় নেয় । বিএনপি নেতা সরণজাই কলেজের প্রভাষক আবুল কালাম আজাদ ডেইরি ফার্মের নামে প্রথমে এ মটার বসান । তিনি মটার বসিয়ে ক্ষান্ত হননি বিএমডিএর গভীর নলকুপের ড্রেন ভেঙ্গে স্কীম তৈরির জন্য আন্ডারগ্রাউন্ড ড্রেন নির্মাণ করছেন ।

মটারের জায়গায় কাজ করা দুই মিস্ত্রি মটারের জায়গাটি পাকা ও প্লাস্টারের কাজ করছিল । তাদের কাছে জানতে চাইলে বিএনপি নেতার কথা না বলে তাঁরা বলেন সাবেক সেনা সদস্য শরিফ এমটার দিয়েছেন । বিএনপি নেতার মটারের উত্তরে ৮০০ ফিট দূরে রয়েছে গভীর নলকুপ, পশ্চিমে ৩০০ ফিট দূরে রয়েছে আরেকটি অনুমদিত মটার । তারপরও শুধু মাত্র মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে বিদ্যুৎ লাইন দিয়েছে বলেও প্রচার রয়েছে ।

অভিযোগ কারী জুয়েল জানান বিদ্যুৎ সংযোগের আগ মুহূর্তে পিডিবিকে অভিযোগ দেবার পরেও তাঁরা ৩ফেজের সংযোগ দেন । এমন কি বিএমডিএর গভীর নলকুপের ড্রেন ভেঙ্গে অবৈধ মটার মালিক কালাম স্কীমের জন্য নিজেই ড্রেন তৈরি করছেন । যেখানে সরকার ভুগর্ভের পানি রক্ষা করতে নানা পরিকল্পনা হাতে নিচ্ছেন । অথচ পিডিবির একশ্রেনীর অসাধু কর্মচারীরা গায়ের জোরে দিয়েছেন বিদ্যুৎ সংযোগ । অথচ সেচের জন্য একটি মটার বসাতে হলে উপজেলা সেচ কমিটির ছাড়পত্র ছাড়া কোন ধরণের বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া যাবেনা । এক্ষেত্রে কোন নিয়মের তোয়াক্কা করেননি পিডিবি অফিস ।

Distribution of illegal 3 phase lines in the tanker PDB in Dhaka

Distribution of illegal 3 phase lines in the tanker PDB in Dhaka

পিডিবির আবাসিক প্রকৌশলী আবু সাইদ হেলালী জানান সেচ প্রকল্পের জন্য ব্যবসায়িক কাজের জন্য লাইন দেয়া হয়েছে। বাঁশঝাড়ের ভিতর কোন ব্যবসার জন্য লাইন দেয়া হয়েছে এমন প্রশ্ন করা হলে এড়িয়ে গিয়ে একই ধরনের উত্তর দেন । তবে অবৈধ মটার মালিক কালামের মোবাইলে ফোন দেয়া হলে রিসিভ করেননি তিনি ।

বিএমডিএর আবাসিক প্রকৌশলী শরিফুল ইসলাম জানান অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। সেচ কমিটির সভাপতি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এমরান আলী মোল্লা বলেন সেচ কমিটির অনুমোদন ছাড়া কোন ধরনের মটার বসানো বা বিদ্যুৎ লাইন বিতরণ করা যাবেনা। কিন্তু কিভাবে বিদ্যুৎ অফিস ৩ফেজের লাইন দিয়েছে এটা অজানা । তবে এমন হয়ে থাকলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে ।

এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুহাঃ শওকাত আলী বলেন ভূগর্ভের পানির স্থর ব্যাপকহারে কমে যাবার কারনে অনেক আগেই সেচ কমিটি মটার বসানো নিষিদ্ধ করেছেন । তারপরও যদি এমনটি হয়ে থাকে তাহলে অবশ্যই আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে ।

দেখা হয়েছে: 433
সর্বাধিক পঠিত
ফেইসবুকে আমরা

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

প্রকাশকঃ মোঃ জাহিদ হাসান
সম্পাদকঃ আরিফ আহম্মেদ
সহকারী সম্পাদকঃ সৈয়দ তরিকুল্লাহ আশরাফী
নির্বাহী সম্পাদকঃ মোঃ সবুজ মিয়া
মোবাইলঃ ০১৯৭১-৭৬৪৪৯৭
বার্তা বিভাগ মোবাইলঃ ০১৭১৫-৭২৭২৮৮
ই-মেইলঃ [email protected]
অফিসঃ ১২/২ পশ্চিম রাজারবাগ, বাসাবো, সবুজবাগ, ঢাকা ১২১৪
error: Content is protected !!