fbpx

|

বাঘায় ব্যালেট বাক্সকে কেন্দ্র করে মারপিট অফিস ঘেরাও

প্রকাশিতঃ ৪:৩৬ অপরাহ্ন | জানুয়ারী ০১, ২০১৮

নাজিম হাসান,রাজশাহী প্রতিনিধি:
রাজশাহীর বাঘা পৌর নির্বাচনে ৯নং মশিদপুর কেন্দ্রে অতিরিক্ত একটি ব্যালেটবাক্স (ফাকা) ভুল করে রেখে আসার ঘটনাকে কেন্দ্র করে পরাজিত মেয়র প্রার্থী আক্কাছ আলীর সমর্থকরা নির্বাচন কারচুপির অভিযোগ এনে উপজেলা ঘেরাও করাসহ এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল করেছে।

এর আগে তারা একজন সরকারি কর্মচারিকে মারপিট করে। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন। রোববার দুপুরে বাঘা উপজেলা পরিষদের সামনে এঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, গত ২৮ তারিখ বৃহস্পতিবার পৌর নির্বাচন শেষে কেন্দ্র ভিত্তিক ফল প্রকাশের পর মশিদপুর কেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রিজাইডিং অফিসার ব্যাংক কর্মকর্তা রেজাউল করিম ভুলবসত: একটি ব্যালেট বাক্স কেন্দ্রের অফিস কক্ষে রেখে চলে আসেন। এরপর তিনি মৌখিকভাবে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তাকে বিষয়টি অবগত করেন এবং রোববার সেই বাক্সটি নির্বাচন অফিসের অপারেটর তসলিম উদ্দিনের কাছে জমা দেন।

এদিকে রোববার সকালে ওই বাক্সটি মোটরসাইকেলে করে উপজেলায় নিয়ে আসতে দেখেন কতিপয় লোকজন। তারা তাৎক্ষনিক বিষয়টি পরাজিত মেয়র প্রার্থী আক্কাছ আলীসহ দলীয় লোকজনকে অবগত করেন। এর ফলে মুহুর্তের মধ্যে শতশত লোকজন উপস্থিত হয় উপজেলা পরিষদ চত্বরে।

তারা এ নিয়ে নির্বাহী কর্মকর্তাকে প্রশ্ন ছুড়েন এবং ঘটনার এক পর্যায় প্রকল্প অফিসের এক কর্মচারি (সেন্টুকে) বেধড়ক মারপিট করে তার মোবাইল ছিনিয়ে নেয়। পরক্ষণে আক্কাছ আলী তার লোকজন নিয়ে উপজেলা চত্বরে আসে এবং নির্বাহী কর্মকর্তার সাথে কথা বলে। ঘটনার এক পর্যায় নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিন রেজা এসিল্যান্ড এবং ওসিসহ আরও অনেকে উপজেলা নির্বাচন অফিসে যান এবং ওই ব্যালেট ব্যাক্সটি দেখাসহ মশিদপুর কেন্দ্রে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ব্যাংক অফিসার) রেজাউল করিমের সাথে কথা বলেন।

রেজাউল করিম জানান, তার কেন্দ্রে ৭টি বুথের বিপরিতে ৮ টি ব্যালেট ব্যাক্স নির্বাচন অফিস থেকে দেয়া হয়েছিল। এর মধ্যে ১টি (অতিরিক্ত) বাক্স ৯নং মশিদপুর স্কুলের অফিস কক্ষে রাখা ছিল। কিন্তু ভোট গণনা হয়েছিল বড় একটি কক্ষে। সেখান থেকে ফল প্রকাশের পর তিনি ওই অতিরিক্ত বাক্সটি ভুল করে রেখে আসেন। পরে নির্বাচন অফিসারকে জানালে তিনি সেটি পরে জমা দিতে বলেন। সেই আলোকে রোববার (অফিসডে) তিনি ওই বাক্সটি নির্বাচন অফিসে জমা দেন। আক্কাস আলী অভিযোগ করে বলেন, ভোট শেষে ব্যালেট বাক্সটি কেন্দ্রে রেখে আসার কোন বিধান নেই। বিগত নির্বাচনে ওই কেন্দ্রে একটি ঘটনা ঘটেছিল। এ কানে বিষয়টি সহজ ভাবে নেয়া সম্ভব হচ্ছে না। তিনি এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ করবেন বলে জানান।

তবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিন রেজা ও নির্বাচন অফিসার মজিবুল আলম অপরাধ বার্তাকে বলেন, মানুষ মাত্রই ভুল হতেই পারে, এটিকে এতো বড় করে দেখার কিছু নেই। এখানে ভোট অনিয়মের কোন ঘটনা ঘটেনি। তাঁরা লিখিত অভিযোগ পেলে এর জবাব দেবেন বলে জানান।

দেখা হয়েছে: 410
সর্বাধিক পঠিত
ফেইসবুকে আমরা

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

প্রকাশকঃ মোঃ জাহিদ হাসান
সম্পাদকঃ আরিফ আহম্মেদ
সহকারী সম্পাদকঃ সৈয়দ তরিকুল্লাহ আশরাফী
নির্বাহী সম্পাদকঃ মোঃ সবুজ মিয়া
মোবাইলঃ ০১৯৭১-৭৬৪৪৯৭
বার্তা বিভাগ মোবাইলঃ ০১৭১৫-৭২৭২৮৮
ই-মেইলঃ [email protected]
অফিসঃ ১২/২ পশ্চিম রাজারবাগ, বাসাবো, সবুজবাগ, ঢাকা ১২১৪
error: Content is protected !!