fbpx

|

সুন্দরী পপি বেগমের অনৈতিক লিপ্সায় অতিষ্ঠ এলাকাবাসী

প্রকাশিতঃ ৪:২১ অপরাহ্ন | জানুয়ারী ১৩, ২০১৮

শরীয়তপুর প্রতিনিধিঃ

শরীয়তপুর পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের হাতিরকান্দি স্বর্ণঘোষ গ্রামের মজিদ সরদারের মেয়ে পপি বেগমের অপকর্মে অতিষ্ট এলাকাবাসী। এ ব্যাপারে গত ১০ জানুয়ারি জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ে একটি অভিযোগপত্র দায়ের করেছেন একই বাড়ির পপিরর কাকী শাহিদা।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, পপি বেগম বিভিন্ন অপকর্ম নেশা করা, বিভিন্ন পুরুষের সাথে রাত যাপন করা ইত্যাদি। পপি দীর্ঘদিন এই অপকর্মগুলো করে আসছে। এ ব্যাপারে পপির বাবা মজিদ সরদারকে বিভিন্ন সময় জানালে তারা জানায় পপি আমাদের মেয়েনা, এছাড়া পপিকে এলাকায় এই অপকর্ম থেকে বিরত থাকার জন্য একাধিকবার দরবার শালিসও হয়েছে। কিন্তু কারো কথা না শুনে পপি তার ইচ্ছে মতো কাজ চালিয়ে যায়। এমতাবস্থায় এলাকার অন্যান্য ছেলে-মেয়ে নিয়ে দু:চিন্তায় আছেন অভিভাবকরা।

পপির অনৈতিক কাজের বিরুদ্ধে শরীয়তপুর জেলা পুলিশ সুপারের কাছে অভিযোগকারীনি শাহিদা বেগম অভিযোগ করে বলেন, পপি আমার ভাসুরের মেয়ে,একই বাড়িতে আমাদের বসবাস। কিন্তু সে বিভিন্ন পুরুষের সাথে অনৈতিক সম্পর্কের সাথে জড়িত ইয়াবা সেবন করার কারণে আমাদের সন্তানদের নিয়ে চিন্তিত আমরা, এই এলাকায় গাঁজা, মদ, ইয়াবা, বিক্রি করে এ ধরনের অনৈতিক কর্ম-কান্ড দেখে দেখে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে এই এলাকার উঠতি বয়সের তরুন-তরুনীরা, গত মঙ্গলবার রাতে পপির ঘরে দুইজন পুরুষের সাথে পপিকে এলাকার লোকজন আটক করে। তাই এলাকার স্বার্থে পপির বিচার চেয়ে আমি জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ে একটি অভিযোগপত্র দাখিল করেছি, আমি এই খারাপ মেয়ের উপযুক্ত বিচার দাবি করছি।

স্বর্ণঘোষ গ্রামের সাবেক পুলিশ সদস্য আক্তার ঢালীর ১টি চায়ের দোকান পপির বাড়ির সামনে হওয়ায় প্রতিনিয়ত পপির ঘরে যুবক ছেলেদের যাতায়াত দেখে এবং পপিকে বাড়ির বাইরে মটর সাইকেল দিয়ে নিয়ে যায় বলে তিনি জানান।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক হাতির কান্দীর এক যুবক জানায় পপি সুন্দরী একজন যুবতী, তার সাথে বেশির ভাগ সময় পুলিশদের সাথে ঘোরা ফেরা করতে দেখা যায়, এর মধ্যে দু-একজন ধরাও পড়েছে।

ভিন্ন বক্তব্য অভিযুক্ত পপির সে জানায়, রাসেল আমার খালাতো ভাই, তাই সে আমাদের বাড়িতে আসে। গত মঙ্গলবার রাতে রাসেল ভাই তার বন্ধুকে নিয়ে আসে আমাদের বাড়িতে আসলে এলাকার কিছু খারাপ লোক যারা আমার দূর্বলতার সুযোগ নিতে চায়, তারা আমাদের ঘরে ঢুকে মেহমানসহ আমাদের মারধর করে।

উক্ত এলাকার পৌর কাউন্সিলর আব্দুর রশিদ সরদার বলেন,এ অপকর্মের সাথে জড়িতদের বিচার হওয়া উচিত, দরকার হলে তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।

শরীয়তপুর পুলিশ সুপার(ভারপ্রাপ্ত) এহসান শাহ্ বলেন, আমাদের কাছে স্বর্নঘোষ হাতির কান্দির শাহিদা বেগম নামের ওই এলাকার এক নারী পপি বেগম নামের অন্য এক নারীর অনৈতিক কাজের বিরুদ্ধে একটা অভিযোগ করেছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখছি দ্রুতই এর সমাধান হবে।

দেখা হয়েছে: 614
সর্বাধিক পঠিত
ফেইসবুকে আমরা

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন
অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

প্রকাশকঃ মোঃ জাহিদ হাসান
সম্পাদকঃ আরিফ আহম্মেদ
সহকারী সম্পাদকঃ সৈয়দ তরিকুল্লাহ আশরাফী
নির্বাহী সম্পাদকঃ মোঃ সবুজ মিয়া
মোবাইলঃ ০১৯৭১-৭৬৪৪৯৭
বার্তা বিভাগ মোবাইলঃ ০১৭১৫-৭২৭২৮৮
ই-মেইলঃ [email protected]
অফিসঃ ১২/২ পশ্চিম রাজারবাগ, বাসাবো, সবুজবাগ, ঢাকা ১২১৪
error: Content is protected !!