|

জাল দলিলে টাকা আত্মসাতের প্রতিকারে সংবাদ সম্মেলন

প্রকাশিতঃ ২:১৫ পূর্বাহ্ন | জানুয়ারী ১৭, ২০১৮

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধাঃ

গাইবান্ধা চিফ জুডিসিয়াল ভবন নির্মাণের জন্য (জেলা জজ কোর্ট সংলগ্ন) অধিগ্রহণকৃত পৌর এলাকার উত্তর ধানঘড়া গ্রামের রেজাউল করিমের স্ত্রী বিউটি বেগমের পৈত্রিক সুত্রে প্রাপ্ত জমির ক্ষতি পূরণের টাকা আত্মসাতের জন্য জাল দলিল ও কাগজপত্র তৈরীর মাধ্যমে পায়তারা চালানো হচ্ছে।

একই গ্রামের মো. আকবর আলী, তার কন্যা হাসিনা খাতুন ও প্রয়াত আব্দুল মান্নান সাদা মিয়ার পুত্র আরিফ মিয়া এই অপচেষ্টা চালাচ্ছে। আজ ১৬ জানুয়ারী মঙ্গলবার গাইবান্ধা প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে জমির মালিক বিউটি বেগম এই অভিযোগ করে।

সংবাদ সম্মেলনে বিউটি বেগম তার লিখিত বক্তব্যে উল্লেখ করেন, আব্বাস আলীর ওয়ারিশ হিসেবে উক্ত ভবন নির্মাণের জন্য (এলএ কেস নং ০৯/২০১০-১১) অধিগ্রহণকৃত ২২ শতক জমির মধ্যে ১৭ শতক জমির (দাগ নং ৩১০৮) জমির ক্ষতি পূরণ বাবদ ৪২ লাখ ৫১ হাজার ৩শ’ ৬০ টাকা দাবি করেন। উক্ত টাকা প্রাপ্তিতে বাধা দিয়ে আত্মসাৎ করার অপচেষ্টা হিসেবে ওই চক্রটির হোতা আকবর আলী ভুয়া কাগজপত্রের মাধ্যমে তার নামে বিউটি বেগমের জমি খারিজ করে নেয়।

বিষয়টি অবগত হওয়ার পর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) বরাবরে অভিযোগ করে বিউটি বেগম তার পক্ষে রায় প্রাপ্ত হয়। এমতাবস্থায় ওই আকবর আলী ও তার সঙ্গীরা রংপুর বিভাগের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (রাজস্ব) বরাবরে আপিল করে এবং নথিটি হস্তান্তর করাকালিন গাইবান্ধা ভূমি অফিস প্রদত্ত নামজারির গুরুত্বপূর্ণ নথিটি গায়েব করে।

এতে রংপুর বিভাগের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (রাজস্ব) বরাবরে নথির জন্য একাধিকবার আবেদন করা স্বত্বেও প্রতিকার না পেয়ে ঢাকাস্থ ভূমি আপিল বোর্ডে আপিল করতে বাধ্য হয় বিউটি বেগম।

এমতাবস্থায় আকবর আলী ও তার সঙ্গীরা গত ২০১৭ সালের ২৫ সেপ্টেম্বর জেলা রেজিস্ট্রার অফিস থেকে বালাম বই কাটাকাটি করে জাবেদা সংগ্রহ করে। যাতে দুর্নীতির মাধ্যমে তাদের নামে উক্ত ১৭ শতক জমির মালিকানা উল্লেখ করা হয়। অথচ ওই জমির মালিকানা সংক্রান্ত একটি জাবেদা বিউটি বেগম জেলা রেজিস্ট্রার অফিস থেকে গত ২০১৪ সালের ১২ ফেব্র“য়ারি যথারীতি সংগ্রহ করে তার কাছে সংরক্ষিত রেখেছে, যা বিউটি বেগম আপিল করার সময় দাখিল করে।

তদুপরি বিউটি বেগম প্রতিকারের দাবিতে দুর্নীতি দমন কমিশন, জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, পিবিআই, এনএসআইসহ অন্যান্য উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ বরাবরে আবেদনপত্র দাখিল করে।

কিন্তু অদ্যাবধি কোন প্রতিকার না পেয়ে দিশেহারা হয়ে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে জরুরী ভিত্তিতে প্রতিকার দাবি করেছে বিউটি বেগম।

দেখা হয়েছে: 481
সর্বাধিক পঠিত
ফেইসবুকে আমরা

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন
অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

প্রকাশকঃ মোঃ উবায়দুল্লাহ
সম্পাদকঃ আরিফ আহম্মেদ
সহকারী সম্পাদকঃ সৈয়দ তরিকুল্লাহ আশরাফী
নির্বাহী সম্পাদকঃ মোঃ সবুজ মিয়া
মোবাইলঃ ০১৯৭১-৭৬৪৪৯৭
বার্তা বিভাগ মোবাইলঃ ০১৭১৫-৭২৭২৮৮
ই-মেইলঃ [email protected]
অফিসঃ ১২/২ পশ্চিম রাজারবাগ, বাসাবো, সবুজবাগ, ঢাকা ১২১৪