fbpx

|

রাজশাহী-১ আসনে পিতার প্রচেষ্টায় তৃনমূলে বেড়েই চলেছে সাহিনের জনপ্রিয়তা

প্রকাশিতঃ ২:১৬ পূর্বাহ্ন | ডিসেম্বর ৩০, ২০১৭

সারোয়ার হোসেন, তানোরঃ

রাজশাহী-১ (তানোর-গোদাগাড়ী) নির্বাচনী এলাকায় ইতিমধ্যে মুন্ডুমালা বিএনপির সভাপতি মোজাম্মেল হকের ছেলে যুক্তরাষ্ট প্রবাসী সাহাদাৎ হোসেন সাহিন দলমত নির্বিশেষে এলাকাবাসীর কছে পছন্দের প্রার্থী হয়ে উঠতে শুরু করেছে। তানোর বিএনপির তৃনমূল রাজনীতিতে তাঁকে নিয়ে সৃষ্টি হয়েছে রীতিমত গণজোয়ার।

জানা গেছে, তানোর মুন্ডুমালা বিএনপির সভাপতি মোজােেম্মল হক দীর্ঘ দিন ধরে তানোর-গোদাগাড়ীর বিভিন্ন এলাকায় নেতাকর্মীদের নিয়ে ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীদের তোয়াক্কা না করে মাঠে ঘাটে মিটিং মিছিল সমাবেশ ও সাধারন নাগরিকদের সাথে দিন-রাত গণসংযোগ করে চলেছেন। এতে করে তানোর-গোদাগাড়ীতে বিএনপির মাঠ চাঙ্গা হয়ে উঠতে শুরু করেছে।

নেতাকর্মীরা বলছে, দলের এমন দু’সময়ে সাহসী কতার পরিচয় দিয়ে কোনকিছু তোয়াক্কা না করে মুন্ডুমালা বিএনপির সভাপতি মোজাম্মেল হক তার ছেলে সাহিনের জন্য দিনরাত ধানের শীষের পক্ষে গণসংযোগ করেই চলেছে। আর এইসব দেখে বিএনপির প্রায় নেতাকর্মী একত্রিত হয়ে সাহিনের বিরুদ্ধে কিছুটা মতবিরোধ থাকলেও তা নেতৃত্বের গুনে ও বিএনপির দু’সময়ে সক্রিয় ভাবে মাঠে থেকে মাঠ চাঙ্গা রাখায় বিএনপির তৃনমূল নেতাকর্মীসহ এলাকাবাসীর কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠতে শুরু করেছেন সাহিন।

এদিকে বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের সকল নেতাকর্মীরা তাদের মধ্যেকার ভেদাভেদ ও মতবিরোধ ভূলে গিয়ে সাহিনের পক্ষে এককাতারে সামিল হয়েছে। এককাতারে সামিল হয়ে নেতাকর্মীরা সাহিনকে এমপি নির্বাচিত করার উদ্যোগ নিয়েছে। এসব নেতাকর্মীদের একটাই দাবি যদি ব্যারিষ্টার নির্বাচনে না আসতে পারে তাহলে সাহিনের মতো সচ্ছ ব্যক্তি ইমেজ, জন ও কর্মীবান্ধব, হেভিওয়েট, ত্যাগী নিবেদিতপ্রাণ ও সৎ রাজনৈতিক পরিবারের সন্তান সাহাদাৎ হোসেন সাহিনকে মনোনয়ন দিতে হবে। এদিকে নতুন করে তানোর-গোদাগাড়ীতে সাহিনকে ঘিরে বিএনপির তৃনমূল রাজনীতিতে দেখা দিয়েছে প্রাণচাঞ্চল্য ও গণজোয়ার।

রাজশাহী-১ আসনে পিতার প্রচেষ্টায় তৃনমূলে বেড়েই চলেছে সাহিনের জনপ্রিয়তা-Aporadh-Barta

রাজশাহী-১ আসনে পিতার প্রচেষ্টায় তৃনমূলে বেড়েই চলেছে সাহিনের জনপ্রিয়তা-Aporadh-Barta

বিএনপির নামপ্রকার্শে অনিচ্ছুক কয়েক জন নেতাকর্মী জানান, রাজশাহী-১ আসনের নির্বাচনী এলাকায় একশ্রেণীর বর্তমান বগি (মতলববাজ) নেতা ব্যারিষ্টার আমিনুল হক মনোনয়ন পাবেনা বলে নিশ্চিত হয়ে গুপনে তার পরিবর্তে মনোনয়ন দেয়ার জন্য তার ঘনিষ্ঠ কয়েক জনের নাম কেন্দ্রে পাঠিয়েছেন। এদিকে নেতাকর্মীদের সাথে কোনো আলোচনা ছাড়াই ব্যারিষ্টারের এমন গুপন কর্মকান্ডের ঘটনা নেতাকর্মীদের মধ্যে ফাস হয়ে পড়লে নেতাকর্মীরা ব্যারিষ্টারের বিরুদ্ধে রাগে ক্ষোভে ক্ষুদ্ধ হয়ে উঠেন। এছাড়াও ব্যারিষ্টারের এমন জ্ঞানহীন কান্ডের ঘটনা এলাকাতে ফাস হয়ে পড়লে এলাকাজুড়ে দেখা দিয়েছে চাঞ্চল্য বইছে সমালোচনার ঝড়।

এতে করে ব্যারিষ্টারের দিক থেকে নেতাকর্মীরা মুখ ফিরিয়ে নিয়ে সুর তুলেছেন ব্যারিষ্টার যতো রকমেরই আওয়াজ উঠাকনা কেনো বিএনপির তৃণমূল এবার যেকোনো মূল্য এমপি প্রার্থী হিসাবে সাহিনকে নিয়ে নির্বাচন করতে বদ্ধ পরিকর এই প্রশ্নে কোনো আপোষ নাই, বলছে নেতাকর্মীরা। নেতাকর্মীরা আপোষহীন ভাবে তাকে নিয়ে এগিয়ে যেতে চাই।

দেখা হয়েছে: 611
সর্বাধিক পঠিত
ফেইসবুকে আমরা

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

প্রকাশকঃ মোঃ জাহিদ হাসান
সম্পাদকঃ আরিফ আহম্মেদ
সহকারী সম্পাদকঃ সৈয়দ তরিকুল্লাহ আশরাফী
নির্বাহী সম্পাদকঃ মোঃ সবুজ মিয়া
মোবাইলঃ ০১৯৭১-৭৬৪৪৯৭
বার্তা বিভাগ মোবাইলঃ ০১৭১৫-৭২৭২৮৮
ই-মেইলঃ [email protected]
অফিসঃ ১২/২ পশ্চিম রাজারবাগ, বাসাবো, সবুজবাগ, ঢাকা ১২১৪
error: Content is protected !!