fbpx

|

সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ, মাদক সম্রাট মামুনের খুটির জোর কোথায়?

প্রকাশিতঃ ৯:১৬ অপরাহ্ন | ডিসেম্বর ২০, ২০১৭

সিরাজদিখান(মুন্সীগঞ্জ)প্রতিনিধি:
মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার মালখানগর ইউনিয়নের সন্ত্রাসী, চাদাঁবাজ, মাদক সম্রাট, ডাকাত মামুনের কাছে জিম্মি ওই এলাকার স্থানীয় জনগণ।

 

জানা গেছে, মামুন এলাকায় মাদক সম্রাট নামে পরিচিত। শুধু তাই নয় পুলিশের সাথে গোলাগুলি করে অস্ত্র মামলায় আসামী হয়ে জেল খেটে এসে আরো বেপোরোয়া হয়ে উঠেছে। ওই এলাকার মালখানগর তালতলা বাজারে সূর্য্যসেনা ক্লাব গড়ে তুলেছিল সরকারী খাস জমি দখল করে। সেখানে প্রতিনিয়তই চলতো মাদক বেচাকেনা ও সেবনের আড্ডা। প্রশাসনে হস্তক্ষেপে অবৈধ সরকারী জমির উপর ক্লাব নির্মান ও মাদক বেচাকেনার অভিযোগে প্রশাসন ওই ক্লাবে অভিযান চালিয় সরাকারী খাস জমি রক্ষার্থে ভেঙ্গে দেয়। তার পরও মামুন ক্ষ্যান্ত হয়নি এ কুখ্যাত সন্ত্রাসী মামুন।

 

১০ অক্টোবর এলাকার সাধারণ জনগণ মানুনের অত্যাচারে অতিস্ট হয়ে তাকে প্রতিহত করার জন্য গণবিক্ষোভ করলে সে বোরকা পরে এলাকা থেকে পালিয়ে যায়। পালিয়ে গেলেও সে বসে থাকেনি কুকর্ম থেকে । সে আন্ডার ওয়াল্ডে থেকে মালখানগর গ্রামের আশিকদাস ও আরমহল গ্রামের মোস্তফার মাধ্যমে সব কিছু নিয়ন্ত্রন করে চলছে ।

 

আরো জানা গেছে, মালখানগর ইউনিয়ন সহ আসে পাশের এলাকায় মামুনের কমপক্ষে ২৫ থেকে ৩০ টি মাদক বেচাকেনার স্পট রয়েছে এবং মালখানগর ইউনিয়নের সিএনজি স্ট্যান্ড, রিক্সা স্ট্যান্ড ও অটো স্ট্যান্ডে চাঁদাবাজির অভিযোগও রয়েছে।

 

এই সমস্ত কর্মকান্ডে তার সূর্য্যসেনা ক্লাবের কিছু সদস্যও জড়িত রয়েছে বলে জানা গেছে। পুলিশ প্রশাসন মামুনকে গ্রেফতার করতে গেলে আগে থেকেই মামুনকে মুঠোফোনে জানিয়ে দেয় ওই ক্লাবের সদস্যরা। তালতলা বাজারে যাওয়ার জন্য মেইন রাস্তা থেকে যে কয়াটি শাখা সড়ক রয়েছে তার সবখানেই মামুনের লোকজন অবস্থান করে মামুনকে সতর্ক করে দেয়।

 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় লোকজন জানায়, ধারণা করছে সন্ত্রাসী মামুনের কাছে ব্যাপক অবৈধ অস্ত্র রয়েছে। একাধিক এলাকাবাসী জানায়, মামুনের পিতা সালাউদ্দিন প্রতিদিন মদ না খেলে তার ঘুম হয় না। সে এলাকার চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী । চরের জামালের সাথে বাংলামদের ব্যবসা দীর্ঘদিন যাবৎ চালিয়ে আসছে ।

 

মাদক সম্রাট মামুনের মাদক ব্যবসার কারণে ধ্বংস হচ্ছে যুব সমাজ, চুরি ডাকাতি ছিনতাই বেড়েই চলেছে। টঙ্গীবাড়ীর বেতকা ইউনিয়নের কান্দা পাড়া গ্রামের জেলার শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী আবুর নিকট থেকে মামুন ও তার পিতা নিয়মিত মাসোয়ারা আদায় করে চলছে । সন্ত্রাসী মামুনের অবৈধ কর্মকান্ডের চিত্র বিভিন্ন পত্রিকায় প্রকাশিত হলে সন্ত্রাসী মামুন সাংবাদিদের প্রাননাশের হুমকি দিয়ে আসছে।

 

মালখানগরের ফেগুনাসার গ্রামের নিতাই, তারেক, ক্যাপ মনির, যুবলীগের বাহিস্কৃত নেতা বাবুল কাজী, গোড়াপীপাড়ার ট্যাবলেট রাসেল, কানকাটা আক্তার, মালখানগর চৌরাস্তার জুয়েল, জামাই আওলাদ, বিড়াল চোখ মনিরসহ অসংখ্য উঠতি বয়সের ছেলেদের মাধ্যমে ইয়াবা বিক্রি করে এদের নিকট থেকে নিয়মিত মাসোয়ারা নিয়ে তাদের দিয়ে নিয়মিত মাদক ব্যবসা চালাচ্ছে সিরাজদিখানের ডন শীর্ষ সন্ত্রাসী মামুন ।

সিরাজদিখানে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ, মাদক সম্রাট মামুনের খুটির জোর কোথায়

সিরাজদিখানে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ, মাদক সম্রাট মামুনের খুটির জোর কোথায়

শুধু তাই নয় এলাকাবাসীকে বিভিন্ন ভয়ভীতি দেখিয়ে চাঁদা আদায় করে এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে চলছে এ মামুন । গ্রামের সাধারণ মানুষকে বিচারের নামে ডেকে এনে মারধর করে চাঁদা আদায় করে আসছে বহুদিন পূর্ব থেকেই।

 

সরেজমিনে জানা যায়, “তালতলা জিম” এর স্বাত্বাধিকারী রবিন দেওয়ান বাবুকে তার ক্লাবে ডেকে নিয়ে ২ লাখ টাকা চাঁদা দাবী করেন । বাবু দিতে অস্বীকার করিলে মামুন ও তার বাহিণী বাবুকে বেদড়ক পিটিয়ে আহত করে । মামুন ও তার বাবাকে এলাকাবাসী কিছু বলতে সাহস পায় না কারণ সে উপজেলা চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন আহমেদের ভাতিজা ।

 

কিন্ত এ বিষয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন আহমেদ বলেন, মামুন ও তারা বাবা সালাউদ্দিন আহমেদ আমাদের পরিবারের কুলাঙ্গার সন্তান । আমি তাদের কোন প্রকার আশ্রয় প্রশ্রয় দেই না । আইন শৃঙ্খলাবাহিণীকে আমি বলেছি তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য কিন্ত তারা কেন নেয় না তা আমি জানিনা ।

 

অনেকবার ফোন করেও মামুন ও তার পিতা সালাউদ্দিনকে পাওয়া যায়নি । মালখানগর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মাসুদ খান জানান, তার প্রসঙ্গে আমি কিছু বলতে চাই না । আপনি অন্য কারও নিকট জিজ্ঞাসা করে দেখেন ।

 

সিরাজদিখান থানার ওসি(তদন্ত) মোঃ হেলাল উদ্দিন জানান, স্থানীয় ভাবে আমাদের কেউ জানায় না কারা এসব ব্যবসা করে । স্থানীয় প্রতিনিধি, সুশীল সমাজ, সাংবাদিক তারা কেউ আমাদের জানায় নি তাই আমরা কোন ব্যবস্থা নিতে পারছিনা । যদি আমাদের কেউ জানায় সাথে সাথে ব্যবস্থা নিব ।

দেখা হয়েছে: 800
সর্বাধিক পঠিত
ফেইসবুকে আমরা

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

প্রকাশকঃ মোঃ জাহিদ হাসান
সম্পাদকঃ আরিফ আহম্মেদ
সহকারী সম্পাদকঃ সৈয়দ তরিকুল্লাহ আশরাফী
নির্বাহী সম্পাদকঃ মোঃ সবুজ মিয়া
মোবাইলঃ ০১৯৭১-৭৬৪৪৯৭
বার্তা বিভাগ মোবাইলঃ ০১৭১৫-৭২৭২৮৮
ই-মেইলঃ [email protected]
অফিসঃ ১২/২ পশ্চিম রাজারবাগ, বাসাবো, সবুজবাগ, ঢাকা ১২১৪
error: Content is protected !!