fbpx

|

তানোরে দুইশত বিঘা আলু খেত হুমকির মূখে

প্রকাশিতঃ ১২:৪৩ পূর্বাহ্ন | ডিসেম্বর ১৯, ২০১৭

নাজিম হাসান,রাজশাহী প্রতিনিধি:
রাজশাহীর তানোরে বরেন্দ্র বহূমূখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (বিএমডিএ) দায়িত্বহীনতা ও ঠিকাদারের অনিয়ম ও মদিনা সিড স্টোরের অবহেলায় একটি গভীর নলকুপ স্কীমের প্রায় দুই শ’ বিঘা আলুখেত হুমকির মূখে পড়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। তানোরের মাসিন্দা মাঠে এ ঘটনা ঘটেছে।

কৃষকদের অভিযোগ ঠিকাদারের অবহেলায় গভীর নলকুপের আন্ডারগ্রাউন্ড ড্রেনে অসংখ্য ছিদ্র দেখা দেয়ায় কৃষকরা আলুখেতে সেচ দিতে পারছে না। চলতি বছরের ২২ নভেম্বর থেকে ১৭ ডিসেম্বর পর্যন্ত এ ঘটনা বিরাজমান রয়েছে। স্কীমের আলুচাষি কৃষকরা একাধিকবার বিএমডিএ কর্তৃপক্ষকে অবগত করলেও তারা এখানো বিষয়টি আমলে নেয় নি। ফলে এলাকার কৃষকদের মধ্যে চরম অসন্তোষ ও বিস্ফারণমূখ পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

কৃষকদের আক্ষেপ যদি এসব কারণে স্কীমের পুরো আলুখেত নস্ট হয় তাহলে তার দায় নিবে কে। জানা গেছে, তানোর পৌর এলাকার সীমান্ত সংলগ্ন মাসিন্দা মাঠে জেল নম্বর ১২৮ মৌজা মাসিন্দা ও ২৮২ দাগে অবস্থিত গভীর নলকুপের স্কীমে চলতি মৌসুমে প্রায় দুশ’ বিঘা জমিতে আলু চাষ হচ্ছে। গভীর নলকুপের আন্ডারগ্রাউন্ড ড্রেন নির্মাণের জন্য বিএমডিএ কর্তৃপক্ষ ঠিকাদার নিয়োগ করেছেন।

মেসার্স আমিরুল এন্টারপ্রাইজ ঠিকাদারী কার্যাদেশ পেয়েছেন। গভীর নলকুপ স্কীম এলাকায় প্রায় ৩২৮০ মিটার আন্ডারগ্রাউন্ড ড্রেন নির্মাণের জন্য প্রায় ২ লাখ ৬০ হাজার টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। কৃষকদের অভিযোগ ঠিকাদার নিম্নমাণের পাইপ ব্যবহার করায় এসব ড্রেনে অসংখ্য ছিদ্র সৃষ্টি হওয়ায় আলুখেতে সেচ দেয়া যাচ্ছে না। এছাড়াও মদিনা সিড স্টোর স্কেলেটর (মেশিন) দিয়ে স্কীম এলাকায় মাটি কাটায় প্রায় ৩০ বিঘা জমিতে সেচ দেয়া যাচ্ছে না। আগামি দু’একদিনের মধ্যে সেচ দেয়া সম্ভব না হলে পুরো স্কীমের আলুখেত নস্ট হবার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। মাসিন্দা এলাকার কৃষক মাহাবুবুর রহমান জানান, ড্রেন ছিদ্র হওয়ার কারণে তার প্রায় ৩০ বিঘা আলুখেত ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

এছাড়াও কৃষক বাসের আলী, সোহেল ও হাসান আলী অভিযোগ করে বলেন, মদিনা সিড স্টোর ও ঠিকাদারের অবহেলার কারণে তারা তাদের আলুখেত নিয়ে চরম দুঃচিন্তায় রয়েছেন। এমনকি বিষয়টি বিএমডিএ কর্তৃপক্ষকে একাধিকবার জানানো হলেও তারা কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করছে না।

এব্যাপারে মেসার্স আমিরুল এন্টারপ্রাইজের ম্যানেজার রুবেল অভিযোগ অশিকার করে বলেন, এসব ড্রেনে ৩০টি ছিদ্র দেখা দিয়েছে। তিনি বলেন, সময়মত এসব মেরামত করে দেয়া হবে। এব্যাপারে তানোর বিএমডিএ’র সহকারী প্রকৌশলী শরিফুল ইসলাম বলেন, ঠিকাদারকে বলা হয়েছে বিষয়টি দ্রুত সমাধান করার জন্য। তিনি বলেন, ড্রেন পরীক্ষামূলক অবস্থায় রয়েছে।

এব্যাপারে গভীর নলকুপের অপারেটর মোবারক হোসেন বলেন, ড্রেন ছিদ্র থাকার কারণে সেচ দেয়া সম্ভব হচ্ছে না। তিনি বলেন, একাধিকবার বিএমডিএ এবং ঠিকাদারকে বলা হলেও তারা বিষয়টি আমলে নিচ্ছে না। তিনি বলেন, আগামী দু’একদিনের মধ্যে সেচ দেয়া সম্ভব না হলে স্কীমের পুরো আলুখেত নস্ট হবার সম্ভবনা রয়েছে।

দেখা হয়েছে: 594
সর্বাধিক পঠিত
ফেইসবুকে আমরা

অত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কোন সংবাদ কোন ব্যক্তি বা কোন প্রতিষ্ঠানের মানহানিকর হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী নহে। সকল লেখার স্বত্ব ও দায় লেখকের।

প্রকাশকঃ মোঃ জাহিদ হাসান
সম্পাদকঃ আরিফ আহম্মেদ
সহকারী সম্পাদকঃ সৈয়দ তরিকুল্লাহ আশরাফী
নির্বাহী সম্পাদকঃ মোঃ সবুজ মিয়া
মোবাইলঃ ০১৯৭১-৭৬৪৪৯৭
বার্তা বিভাগ মোবাইলঃ ০১৭১৫-৭২৭২৮৮
ই-মেইলঃ [email protected]
অফিসঃ ১২/২ পশ্চিম রাজারবাগ, বাসাবো, সবুজবাগ, ঢাকা ১২১৪
error: Content is protected !!